বিনা খরচে বিশ্ব ভ্রমণ, মিলবে বেতনও!

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা ।।

এক বছরে ঘুরতে হবে বিশ্বের ৫২টি শহর। অর্থাৎ, আপনি প্রতি সপ্তাহে যাবেন নতুন একটি শহরে। সে জন্য পাবেন পারিশ্রমিকও। কিন্তু বিনিময়ে খরচ করতে হবে না একটি পয়সাও। ভাবছেন, দিবাস্বপ্ন কিংবা অলীক কল্পনা? মোটেও নয়। ভ্রমণপিপাসু অনেকের কাছে স্বপ্নের মতো এই চাকরিটি পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকো অঙ্গরাজ্যের ৩৯ বছর বয়সী নারী সাংবাদিক জ্যাডা ইউয়ান।

জীবনধারা বিষয়ক পোর্টাল সিম্পলমোস্ট.কমের প্রতিবেদনে জানানো হয়, দ্য নিউইয়র্ক টাইমসের সম্মানজনক চাকরি ৫২ প্লেসেসের (52 Places) প্রতিনিধি হতে গত বছর ১৩ হাজারের বেশি প্রার্থী আবেদন করেছিলেন। এই পদের জন্য নির্বাচিত ব্যক্তিকে ২০১৮ সাল জুড়ে প্রতি সপ্তাহে একটি করে নতুন শহর ঘুরতে যাওয়ার কথা বলা হয়েছিল।

সেই আবেদনকারীদের একজন ছিলেন জ্যাডা। আবেদনের পর নিয়ম অনুযায়ী সব ধাপ অতিক্রম করে তিনি সুযোগ পেয়েছেন লোভনীয় এই চাকরির।

জ্যাডা তার ক্যারিয়ারের সিংহভাগ সময় ধরে সাংবাদিকতা করেছেন। নিউইয়র্ক সিটিতে বিনোদন বিভাগে লেখালেখি করতেন তিনি।

চলতি বছরের ১২ জানুয়ারি দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস পরিচয় করিয়ে দেন জ্যাডাকে। তিনি যেসব শহরে যাবেন ও সে জন্য যে বেতন পাবেন, তার একটি তালিকাও প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যমটি।

নিউইয়র্ক টাইমস জানায়, আর কিছুদিনের মধ্যেই পুরো বিশ্ব ভ্রমণে বের হচ্ছেন জ্যাডা। অথচ সেই নারীর বেড়ে ওঠা অজপাড়া গাঁয়ে। সেখানে রাস্তা পাকা করা হয়েছিল তার কৈশোর পেরোনোর পর।

বিনা খরচে এক বছর পৃথিবী ভ্রমণের সুযোগ পেয়েছেন জ্যাডা ইউয়ান

কলেজে ভর্তি হওয়ার পর নিউ ইয়র্ক ম্যাগাজিনে বিনোদন বিভাগের রিপোর্টার হিসেবে চাকরি নেন জ্যাডা। তিনি সানড্যান্স ও কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের মতো বড় ধরনের ইভেন্ট কভার করতেন। শুধু বড় ইভেন্ট নয়, তিনি আশপাশের মানুষের জীবনের গল্প নিয়েও কাজ করতেন। বিগত ১৭ বছর ধরে ইউয়ান তার নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করেছেন, যা দ্য নিউইয়র্ক টাইমসের দৃষ্টিগোচর হয়।

এক সাক্ষাৎকারে জ্যাডা লোভনীয় চাকরিটি পাওয়ার বিষয়ে বিস্তারিত জানান। তিনি বলেন, ‘চাকরির বর্ণনাতে বলা হয়েছিল, তারা এমন কাউকে খুঁজছেন যারা যেকোনো একটি স্থানে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সেই স্থানের জীবনধারাকে বুঝে নিতে পারবেন। একজন বিনোদন রিপোর্টার হিসেবে যে কাজটি আমাকে অনেকবারই করতে হয়েছে।’

‘প্রথমে আমি জানতাম না নতুন কোনো স্থান সম্পর্কে, আমি জানতাম না কীভাবে নতুন স্থানের চারপাশের সঙ্গে পরিচিত হতে হয়। সাবওয়ে পদ্ধতি সম্পর্কেও আমি জানতাম না। এমনকি যখন প্রথমবার কানে যাই, তখন আমি জানতাম না কীভাবে ফ্রেঞ্চ ভাষায় কথা বলতে হয়। দিন শেষে আমি সবকিছুই নিজের মতো করে গুছিয়ে ও শিখে নিতে পেরেছি।’

জ্যাডা তার ৫২টি স্থান ভ্রমণ শুরু করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ অরলিন্স শহর দিয়ে। এর পরই তিনি কলম্বিয়া, সুইজারল্যান্ড, ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়া, স্কটল্যান্ড ও ক্যাম্বোডিয়াতে ভ্রমণ করবেন। যাত্রাপথে তিনি নতুন শহর ও পরিচিত হওয়া নতুন সব মানুষ নিয়ে লিখবেন।

সূত্র : বিনা খরচে বিশ্ব ভ্রমণ, আছে বেতনও!  [প্রিয় ডটকম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮]