নিমপাতার যত গুণ

নিমপাতার ব্যবহার যেন আমরা ভুলতে বসেছি। অথচ অসাধারণ সব গুণ রয়েছে এই পাতার। আমাদের বাবা-মা, দাদা-নানারা এই পাতার গুণের কথা জানলেও এই প্রজন্মের অনেকে নিমপাতা যেন চোখেও দেখেনি। কী গুণ আছে এই পাতার, জেনে নিন এখনই।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে নিমপাতা। জীবাণু ও সংক্রমণ প্রতিরোধে এই পাতা অপ্রতিদ্বন্দ্বী। যেকোনো ধরনের জমাট ময়লা পরিষ্কারে কার্যকর। ত্বকের যত্নে নিমপাতা তুলনাহীন। খুশকি সারাতে সহায়তা করে এই পাতা। মুখের যত্নেও নিমপাতা অনন্য। এই পাতা খাবারে ব্যবহার করলে রক্ত পরিষ্কার হয়। রক্তের গ্লুকোজের মাত্রার ভারসাম্য ঠিক রাখে। খোসপাঁচড়া, ছত্রাক বা ছারপোকার কামড় সারাতেও নিমপাতা অনন্য।

চুলপড়া রোধে নিমপাতা
সুন্দর ও দৃষ্টিনন্দন চুলের জন্য নিমপাতার জুড়ি নেই। চুলে নিমপাতা ব্যবহার করলে চুল পড়া বন্ধ হয়, খুশকি ও উকুন দূর হয়। এক কথায় নিমপাতা ব্যবহার করে দূর করতে পারেন চুলের সব সমস্যা। নিমপাতা ব্যবহারে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। সপ্তাহে একদিন নিমপাতা বেটে চুলে লাগিয়ে ঘণ্টাখানেক রেখে ধুয়ে ফেলুন এতে শুধু চুল পড়া কমবে না সেইসঙ্গে চুল নরম ও কোমল হবে। এছাড়া নিমপাতার রস ও মধু মিশিয়ে সপ্তাহে তিনদিন চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন আর আবিষ্কার করুন ঝলমলে চুল। ১ চা চামচ নিমপাতার রস, ১ চা চামচ আমলকির রস, ১ চা চামচ লেবুর রস, প্রয়োজন অনুযায়ী টকদই মিশিয়ে সপ্তাহে দুইদিন চুলে লাগিয়ে আধঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করুন। নিমপাতা শুধু চুল পড়া বন্ধ করে না একইসঙ্গে খুশকি ও উকুন দূর করে।

সূত্র : ইন্টারনেট