নিকলীর গ্রামপুলিশদের নিরানন্দের ঈদ!

বিশেষ প্রতিনিধি ।।

ঈদুল ফিতরে বেতন-বোনাস পাননি নিকলীর গ্রামপুলিশেরা। পরিবার-পরিজন নিয়ে অনেকটা নিরানন্দেই ঈদ কেটেছে তাদের।

জানা যায়, মাসিক ৩ হাজার করে দুই মাসের বেতন, ঈদ বোনাস ও সাপ্তাহিক ৩শ’ করে টাকাসহ নিকলী উপজেলার প্রত্যেক গ্রামপুলিশের প্রায় ১৫ হাজার করে টাকা কর্তৃপক্ষের কাছে পাওনা হয়। যা ঈদুল ফিতরের সরকারি বন্ধের আগে পরিশোধের কথা। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে কোনো টাকাই ভাগ্যে জুটেনি তাদের।

নিকলী সদর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রামপুলিশ রতন মিয়া জানান, বর্তমান বাজারমূল্যে যদিও মাসিক ৩ হাজার টাকা কিছুই না; তবুও এই বেতনকে কেন্দ্র করেই আমাদের স্বপ্ন, সাধ বহু কিছু। সব মিলিয়ে ১৫ হাজারের মতো পাওনা আমাদের বিশাল পরিকল্পনার ভিত্তি ছিলো। সব স্বপ্নই গুড়িয়ে গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক দফাদার বলেন, যে দিন নিশ্চিত হয়েছি বেতন-বোনাস পাবো না, সেদিন থেকে অনেকটা পালিয়ে বেড়াচ্ছি। ঈদ আসার অপেক্ষা তো দূরের কথা, কখন পার হবে সেই প্রতিক্ষা-ই করেছি।

নিকলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ইয়াহ ইয়া খান বলেন, গ্রামপুলিশদের বেতনের অর্ধেক জেলা পরিষদ এবং অর্ধেক উপজেলা পরিষদ থেকে হয়। জেলা পরিষদের টাকা ঈদের আগেই এসে পৌঁছেছে। আমাদের এখানের টাকা ইঞ্জিনিয়ার সাহেব এবং আমার যৌথ একাউন্টে থাকে। ইঞ্জিনিয়ার সাহেব আগেই ছুটিতে চলে যাওয়ায় তাদের বেতন-বোনাস পরিশোধ সম্ভব হয়নি।