যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা জালালউদ্দিন আহমেদের ইন্তেকাল

নিজস্ব প্রতিনিধি ।।

নিকলী উপজেলার জারইতলা ইউনিয়নের যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ডাক্তার জালালউদ্দিন আহমেদ গতকাল শনিবার (২৩ জুন ২০১৮) ঢাকাস্থ একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহ ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন।

তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে, ৩ মেয়ে, আত্মীয়স্বজন ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুমের জানাজা নামাজ আজ বাদ জোহর নিজ বাড়িতে অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে তাঁকে নিজ বাড়িতে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

জানাজায় উপস্থিত থাকবেন নিকলী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু বকর সিদ্দিক। দেশের এই সূর্যসন্তানকে গার্ড অব অনার দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট বাহিনী ও দায়িত্বশীলগণ জানাজার আগেই উপস্থিত হবেন বলে জানিয়েছেন মরহুমের পরিবারের একজন সদস্য।

উল্লেখ্য, এর আগে ৩ মার্চ ২০১৮ তারিখে স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে ঢাকাস্থ ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট নিউরোসাইন্স হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছিলেন। তখন চিকিৎসা নিয়ে অনেকটা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন। সম্প্রতি আবার অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বজনরা ঢাকার বেসরকারি হাসপাতাল রাশমনোতে ভর্তি করান। কয়েকদিন চিকিৎসা চলার পর শনিবার দুপুরে তিনি ইন্তেকাল করেন।

জারইতলা ইউনিয়নের যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ডাক্তার জালালউদ্দিন আহমেদ বাজিতপুর উপজেলার হিলচিয়া বাজারে হোমিওপ্যাথিক ফার্মেসি পরিচালনা করতেন।

মরহুম জালালউদ্দিন আহমেদের শ্যালক ও ঢাকাস্থ নিকলী সমিতির আইন বিষয়ক সম্পাদক রেহানে মুস্তাফা বলেন, “অসুস্থ অবস্থায় আমরা তাঁকে ঢাকা মেডিকেলসহ একাধিক সরকারি হাসপাতালে ভর্তির চেষ্টা করি। আইসিইউতে সিট না থাকা এবং আরো কিছু সমস্যার জন্য অবশেষে বেসরকারি রাশমনো হাসপাতালে ভর্তি করি। আমার দুলাভাই একজন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা সুবিধা না পেয়ে আমরা খুবই মর্মাহত।”

মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনায় পরিবারের পক্ষ থেকে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন রেহানে মুস্তাফা।

ডাক্তার জালালউদ্দিন আহমেদের মৃত্যুতে শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছে ঢাকাস্থ নিকলী সমিতি ও নিকলী উপজেলাভিত্তিক প্রথম অনলাইন সংবাদমাধ্যম আমাদের নিকলী.কম