ফের কামালপুর-মোহরকোনা সেতুর রেলিং ভাঙলো বখাটেরা

নিজস্ব প্রতিবেদক ।।

দামপাড়া, কারপাশা ও সিংপুরের সাথে নিকলীর সংযোগ পথ মোহরকোনা-কামালপুর সেতুর রেলিং ফের ভেঙে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গত পরশু (বুধবার, ২৭ জুন ২০১৮) গভীর রাতে একদল দুর্বৃত্ত স্থানীয় প্রশাসনের উদ্যোগে সংস্কার কাজ চলা এই সেতুটির দুই পাশের রেলিং ভেঙে দেয়। এতে দুর্ভোগ ও যাতায়াতে আরো অনিরাপদ হয়ে পড়লো রুগ্ন মোহরকোনা-কামালপুর সেতুটি। এর আগেও একই রকম ঘটনা ঘটিয়েছিলো এই সেতুতে।

উত্তর অংশের তিন ইউনিয়ন দামপাড়া, কারপাশা ও সিংপুরের সাথে নিকলী উপজেলা সদরের যোগাযোগ রক্ষায় নির্মাণ করা হয়েছিলো একাধিক সেতু। সোয়াইজনি নদীর ওপর নির্মিত ওই সেতুগুলোর একটি মোহরকোনা-কামালপুর সংযোগ সেতু। প্রশস্তে কম হলেও দীর্ঘদিন যাবত এই সেতুটি দিয়েই সদরসহ অন্যান্য এলাকার সাথে যোগাযোগ সুবিধা চলে আসছিলো।

দুর্ঘটনা, ভেঙে পরাসহ নানান অসুবিধা নিয়েও কামালপুর-মোহরকোনা সংযোগ সেতুটিই রয়েছে যোগাযোগের সবচে’ সুবিধাজনক মাধ্যম হিসেবে। বিভিন্ন সময় ভেঙেপরা সেতুর সংস্কার করা হয়েছে। সরু হওয়ায় এক-এক করে গাড়ি পারাপার, সিগন্যালম্যান হিসেবে নিরলস এক বয়োঃবৃদ্ধের খেটে চলার মাঝেও এই সেতুটি মন্দের ভালো হিসেবে এই অঞ্চলগুলোর মানুষদের সেবা দিয়ে আসছে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, মোহরকোনা-কামালপুর সংযোগ সেতুটির অবস্থা খুবই নাজুক ও গাড়ি চলাচলে বিঘ্ন হওয়ায় বড় আকারে নতুন সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে নির্বাচিত প্রতিনিধিগণ। তবে নতুন কাজ শুরুর আগে যতটুকু সম্ভব সংস্কার করে চালানোর চেষ্টা চালাচ্ছে স্থানীয় প্রশাসন। সর্বশেষ দুই পাশের রেলিংয়ের সংস্কার শুরু হয় গত মাসে। আবার দুর্বৃত্তদের আক্রমণের শিকার হয়ে সেতুটি দিয়ে চলাচলকারী মহিলা-শিশু সহ সবাই দুর্ঘটনা নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় রয়েছেন।

দামপাড়া ইউনিয়নের কামালপুর বাসিন্দা কামরুল হাসান জানান, আমরা এই সেতু ব্যবহার করে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় কার্যাদি সম্পাদন করে থাকি। সেতুটি বার বার ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় আমরা চরম ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছি। সর্বশেষ দুষ্কৃতকারীদের এহেন কাজে প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে প্রশাসন ও স্থানীয় প্রতিনিধিদের কাছে জোরালো দাবি জানাচ্ছি, মেরামতসহ এই দুষ্কৃতকারীদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক।