তিন গুণী কবি স্মরণে সৃজন সাহিত্য সংগঠনের আলোচনা সভা

নিজস্ব প্রতিনিধি ।।

কবি জীবনানন্দ দাশ, ফররুখ আহমদ ও সুফিয়া কামালের অবদান বিষয়ে সাহিত্য আড্ডা ও আলোচনা সভা ২৯ জুন ২০১৮ কাউতলী অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন সংগঠনের সভাপতি সৈয়দ মোনাব্বির আহমেদ তনন। সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট কবি ও লোকসংস্কৃতি গবেষক মহিবুর রহিম।

বিশেষ অতিথি ছিলেন কবি ও বাচিকশিল্পী রাকিবুল ইসলাম শুভ, আলোচনা ও কবিতা পাঠ করেন কবি মোঃ আতিকুর রহমান, মোঃ আলী আশরাফ, মোঃ ওবায়দুল্লাহ, মনিরুজ্জামান সিপিসহ সংগঠনের সদস্যবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে কবি মহিবুর রহিম বলেন, নতুন সাহিত্যকর্মীদের জন্যে সাহিত্য আড্ডার কোনো বিকল্প নেই। সাহিত্যে ভাব বিনিময় পরস্পরকে সমৃদ্ধ হতে সাহায্য করে। বাংলা সাহিত্যের অব্যাহত ধারায় জীবনানন্দ দাশ, ফররুখ আহমদ ও সুফিয়া গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। জীবনানন্দ দাশ ত্রিশের দশকের একজন শ্রেষ্ঠতম কবি। সাহিত্যের একটি যুগ সৃষ্টিতে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। তিনি ছিলেন প্রচারবিমুখ নির্জনতা প্রিয় একজন মানুষ। তার কথাসাহিত্যের অধিকাংশ বই জীবদ্দশায় প্রকাশ করেননি। অথচ এসব ছিল সমকালের শ্রেষ্ঠ সাহিত্যকর্ম। জীবনানন্দ দাশ জীবৎকালে যথাযথ মূল্যায়ন পাননি। তার মূল্যায়ন হয়েছে মৃত্যুর বেশ পরে। এমন ট্র্যাজেডি অনেক বাঙালি লেখকের ক্ষেত্রেই দেখা যায়।

তিনি আরো বলেন, ফররুখ আহমদ চল্লিশের দশকে বাংলা সাহিত্যে একজন শ্রেষ্ঠতম কবি। তিনি কলকাতায় অবস্থানকালেই সাহিত্য জগতে পরিচিতি পান। পরবর্তীতে ঢাকায় এসে ঢাকাকেন্দ্রিক সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেন। বাংলা কবিতায় তার অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। সুফিয়া কামাল সাহিত্যের অব্যাহত ধারায় অনন্য অবদান রেখেছেন। তিনি বাংলা ভাষার শ্রেষ্ঠ মহিলা কবি। তিনি সাহিত্যধারায় সর্বদা সক্রিয় থাকার চেষ্টা করেছেন। প্রগতিশীল নারী আন্দোলনেও তার অবিসংবাদিত অবদান স্বীকার করে নিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বাংলা সাহিত্যের মহৎ লেখকদের নিয়ে ধারাবাহিক আলোচনায় অংশ নিতে হবে। তাহলে সাহিত্যের মূল ধারাটি অনুধাবণের সুযোগ পাওয়া যাবে। পরিশেষে সংগঠনের সভাপতি আগামী সাহিত্য আড্ডায় সবাইকে অংশগ্রহণের আহ্বান জানান।