মহাস্থানে হাতির মৃত্যু, বিপাকে পালক

মহাস্থান (বগুড়া) প্রতিনিধি ।।

প্রবাদ আছে, “হাতি বাচঁলেও লাখ, টাকা মরলেও লাখ”। এ কথার ভিত্তি নাই। মঙ্গলবার (৩ জুলাই ২০১৮) দিবাগত দুপুরে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার ঐতিহাসিক মহাস্থানগড়ের দুধ পাথর এলাকায় একটি হাতি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরের দিন বুধবার দুপুরে মারা যায়।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে মহাস্থান ভ্রমনে আসা লোকজন ও এলাকার লোকজন হাতিটি দেখার জন্য ভীড় জমান।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, মহাস্থানগড়ের সাবেক ইউপি সদস্য ফরহাদ হোসেনের ছেলে ব্যবসায়ী মহিদুজ্জোহা মিলু গত ৬ মাস আগে সিলেট থেকে ৮ লাখ টাকায় আনুমানিক ৪৫ বছর বয়সের একটি হাতি ক্রয় করেন। লাইসেন্স করে, মহাস্থানগড়ের নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন, হাতি ভাড়া খাটানোর জন্য। প্রথম অবস্থায় গ্রামের একজনকে হাতির মাউথ হিসাবে, দায়িত্ব দেয়।

হাতির মাউথ, হাতিকে খাওয়ায় ও হাতি ভাড়া খেটে যে টাকা পায় তা থেকে নিজে কিছু নেয়, মালিককে কিছু দেয়। মিলুর ছোট ভাইকে জিঙ্গাসা করা হলে, প্রবাদ আছে, “হাতি বাচঁলেও লাখ টাকা মরলেও লাখ টাকা” এটা কিভাবে হয়? তিনি বললেন, এ কথার কোনো ভিত্তি নাই। কারণ হাতি মারা গেছে টাকা পাওয়া তো দূরের কথা, এখন কয়েক টন ওজনের এই মরা হাতি মাটিতে পুঁতে রাখতে আরো কয়েক হাজার টাকা খরচ হবে।