“হাওরাঞ্চলকে আগাম বন্যাসহিষ্ণু হিসেবে গড়ে তুলতে হবে”

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেছেন, হাওর অঞ্চল বাদ দিয়ে টেকসই দুর্যোগ সহনশীল বাংলাদেশ গঠন সম্ভব নয়। তাই হাওর অঞ্চলকে আগাম বন্যাসহিষ্ণু এলাকা হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই ২০১৮) দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত “হাওর এলাকায় অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে সৃষ্ট আকস্মিক বন্যার কারণ চিহ্নিতকরণ ও ভবিষ্যৎ করণীয় নির্ধারণ” শীর্ষক এক কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহ কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জাতীয় অধ্যাপক প্রফেসর ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী, ড. আইনুন নিশাত প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, দেশের অন্যান্য অঞ্চলের তুলনায় হাওর এলাকা সার্বিক উন্নয়নে পিছিয়ে রয়েছে। এ নেতিবাচক অবস্থা থেকে এ বিশাল জনগোষ্ঠীকে রক্ষা করতে নিবিড় ও সমন্বিত উদ্যোগ নিতে হবে। এজন্য বিজ্ঞানী, গবেষক ও পরিকল্পনাবিদদের কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, প্রাকৃতিক নিয়ামকের সাথে আর্থ-সামাজিক বিষয়ক কারণ যেমন হাওরের পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থায় প্রতিবন্ধকতা, সঠিক সময়ে বাঁধ নির্মাণ ও মেরামত না হওয়া, প্রাতিষ্ঠানিক সমন্বয়ের অভাবসহ নানাবিধ কারণ দুর্যোগ ঝুঁকি বহুলাংশে বাড়িয়ে দিচ্ছে। এ ঝুঁকি নিরসনে আমাদের সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।

ত্রাণমন্ত্রী বলেন, হাওর এলাকায় আকস্মিক বন্যার কারণ চিহ্নিতকরণ ও ঝুঁকি মোকাবেলায় করণীয় সম্পর্কে সুপারিশ প্রণয়নের লক্ষ্যে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ, অধিদপ্তর/ দপ্তর ও জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছিল। কমিটি গুরুত্বপূর্ণ অনেকগুলো সুপারিশও করেছে। বাসস