‘ধর্মীয় নেতাদের সম্পৃক্ততা বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সহায়ক’

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

ধর্মীয় নেতাদের সম্পৃক্ত করলে কমিউনিটি পর্যায়ে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধের কাজ এবং যুবকদের স্বেচ্ছাব্রতী নেতৃত্ব বাল্যবিবাহ প্রতিরোধের কাজকে সহজতর করবে।

আজ (সোমবার ১৬ জুলাই ২০১৮) ব্র্যাক মিলনায়তনে “তারুণ্যের শক্তি : আমরাই পারি বাল্য বিবাহ রুখে দিতে” শিরোনামে প্রকল্পের অভিজ্ঞতা বিনিময় সভায় একথা বলা হয়।

সভায় গার্লস নট ব্রাইডস বাংলাদেশ-এর জাতীয় সমন্বয়ক আন্না মিনজ, আইন ও সালিশ কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক শিপা হাফিজা এবং ‘গার্লস নট ব্রাইডস বাংলাদেশ”- সচিবালয়ের কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান।

প্রকল্প মূল্যায়ন গবেষণায় প্রাপ্ত শিক্ষন ও সীমাবদ্ধতা ও সুপারিশসমূহ অংশগ্রহণকারীদের সামনে তুলে ধরেন হাবিবুর রহমান ও দিলরুবা নাসরিন।

সভায় সুশীল সমাজের প্রতিনিধিসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত যুব ও ধর্মীয় নেতা, কিশোর-কিশোরীসহ শতাধিক ব্যক্তি অংশ নেন। সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। বাসস

এতে বলা হয়, ‘বাল্যবিবাহ’ প্রতিরোধে সমমনা কয়েকটি সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে গঠিত ‘গার্লস নট ব্রাইডস বাংলাদেশ’ জোটের পক্ষ থেকে বরিশাল ও রংপুর জেলায় বাল্য বিয়ে নিরসনের উদ্দেশ্যে এই প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়।

প্রকল্পটি মূলত প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে মেয়েদের ক্ষমতায়নের মাধ্যমে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধকরণে ভূমিকা রাখে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে জোটের সচিবালয়ের দায়িত্ব পালনকারী সংস্থা ব্র্যাকের নেতৃত্বে এবং জোটের সদস্য সংস্থাসমূহ সক্রিয়ভাবে যুক্ত রয়েছে।