নিকলীতে বিদ্যুতের শর্ট সার্কিটে সর্বশান্ত মিতু

বিশেষ প্রতিনিধি ।।

মাকে হারানোর মাস পেরুতেই শনিবার (২১ জুলাই ২০১৮) রাতে বিদ্যুতের শর্ট সার্কিটের আগুনে ঘর পুড়ে সর্বশান্ত মিতু আক্তার (১৮) নামের এক ছাত্রী। মিতু উপজেলার জারইতলা ইউনিয়নের ধারীশ্বর গ্রামের মিলন মিয়ার কন্যা।

জানা যায়, নিকলী উপজেলার জারইতলা ইউনিয়নের ধারীশ্বর গ্রামের মিলন মিয়ার কন্যা মিতু আক্তার। দ্বাদশ ২য় বর্ষে পড়াশুনা করেন কিশোরগঞ্জ পৌর মহিলা কলেজে।

গত মাসখানেক আগে মা হ্যাপী আক্তারের (৩৮) মৃত্যুতে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন পিতা মিলন মিয়া। একমাত্র ভাইও থাকেন এলাকার বাইরে। সবকিছুই সামলিয়ে কয়েকদিন আগে হোস্টেলে ফিরে মিতু। গত শনিবার রাতে তাদের তালাবদ্ধ বসতঘরে বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের উৎপত্তি হয়। প্রতিবেশিরা খবর বুঝে ওঠার আগেই সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ধান বিক্রির ৪৫ হাজার টাকা থেকে শুরু করে পরিধেয় বস্ত্র, দলিলপত্র এমনকি মিতুর এসএসসির সার্টিফিকেটও। সব মিলিয়ে প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিতে মিতু এখন ভাষাহীন প্রায়।

মিতুর সাথে দেখা হলে তার শুধু আশাহীন তাকিয়ে থাকাই যেন সার। প্রতিবেশিরা জানান, একে তো মায়ের মৃত্যু, উপরন্তু সব পুড়ে যাওয়ায় মেয়েটির ভবিষ্যৎ অন্ধাকার হয়ে উঠেছে।