হাটহাজারীতে হত্যা মামলার আসামিকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

মাহমুদ আল আজাদ, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি ।।

হাটহাজারীতে নুরুদ্দিন নামের এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে মোঃ বশরকে (৩২) গ্রেফতার করেছে মডেল থানা পুলিশ। বুধবার (২৫ জুলাই ২০১৮) বিকেল ৫টার দিকে উপজেলাধীন চিকনদণ্ডী ইউনিয়নস্থ বড়দিঘীর পাড় এলাকা থেকে স্থানীয় জনগণ আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। আটককৃত বশর চিকনদণ্ডী ইউনিয়নস্থ বড়দিঘীর পাড় এলাকার রাজখাঁন পাড়ার মৃত ইসহাকের পুত্র।

থানার পুলিশ উপ-পরিদর্শক নাজমুল হাসান মুঠোফোন জানান, স্থানীয় ব্যক্তিদের বরাত সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে হত্যা মামলার আসামি বশরকে উদ্ধার করা হয়। গুরুতর আহত হওয়ার কারণে মুমূর্ষ অবস্থায় থানা থেকে তাকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য। হাসপাতাল থেকে ফিরিয়ে আনার পর গ্রেফতারকৃত বশরকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

মডেল থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, চিকিৎসার জন্য আসামিকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। চিকিৎসা শেষে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত (২৩ মে ২০১৮) বুধবার হাটহাজারীতে মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে নুর উদ্দিন (৩৯) নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। মুমূর্ষ অবস্থায় চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সন্ধ্যা ৭টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। (২৬ মে ২০১৮) উপজেলার ফতেয়াবাদ বাদশা মিয়া সড়কস্থ ফতেহ খান মজুমদার বাড়ি এলাকায় তার প্রতিপক্ষ স্থানীয় কিছু যুবক তার উপর হামলা চালায়।

হামলাকারীরা লাঠি, লোহার রড ও পাইপ দিয়ে তার দুই পায়ের হাঁটু, বাম হাত ভেঙ্গে দেয়। এছাড়া মাথা, মুখ ও শরীরের বিভিন্ন অংশে গুরুতর আঘাত করে। নুর উদ্দিন ফতেয়াবাদ আনার আলী টেন্ডল বাড়ির মো. আলী আহাম্মদের পুত্র। এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তির ছোট ভাই মহিউদ্দিন বাদী হয়ে ৮জনের নাম উল্লেখে আসামি করে হাটহাজারী মডেল থানায় একটি মামলা করেন। যার নং ৬২/৩০-৫-১৮ইং। জনতার মাধ্যমে ৬নং আসামিকে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।