পেলের সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড টপকাতে চান মেসি

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

লিওনেল মেসির সামনে এখন শুধুই এডসন অরান্তেস দো নাসিমেন্তো!

না, শ্রেষ্ঠত্বের দৌড়ে নয়। দু’জন আলাদা সময়ের বলেই হয়তো শ্রেষ্ঠত্বের প্রশ্নটা ওঠে না। তবে গোলের হিসেব তো হতেই পারে? এক ক্লাবের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের হিসেব। শ্রেষ্ঠত্ব বিচারের ক্ষুদ্র এই নিক্তিতে মেসির সামনে এখন শুধুই সেই খটমটে নামটা—ফুটবলপ্রেমী হলে চিনতে অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। পেলে।

পেশাদার ফুটবলে সর্বোচ্চ গোল নিয়ে বিতর্ক চলছেই। পেলে একসময় দাবি করতেন, এই রেকর্ডটা তাঁর। পরে পেলের দেশেরই আরেক কিংবদন্তি রোমারিও ক্যারিয়ারের শেষ দিকে একই দাবি করেন। তবে এক ক্লাবের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডটা যে পেলের—তা নিয়ে খুব একটা বিতর্ক হয়নি। ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব ফুটবল হিস্টরি অ্যান্ড স্ট্যাটিসটিকসের (আইএফএফএইচএস) অফিশিয়াল হিসেব মতে, সান্তোসের হয়ে ৭৫৭টি অফিশিয়াল ম্যাচে পেলের গোলসংখ্যা ৬৪৩। এক ক্লাবের হয়ে এটাই সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড।

কিন্তু পেলের এই রেকর্ড কত দিন টিকে থাকবে তা প্রশ্নসাপেক্ষ। জবাবটা নির্ভর করছে লিওনেল মেসির পারফরম্যান্সের ওপর। গত সপ্তাহে চ্যাম্পিয়নস লিগে পিএসভি আইন্দোহভেনের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছেন মেসি। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এএস’ জানিয়েছে, বার্সেলোনার হয়ে এ নিয়ে তাঁর গোলসংখ্যা দাঁড়াল ৫৫৯। এ জন্য ৬৩৮ ম্যাচ খেলতে হয়েছে আর্জেন্টাইন তারকাকে। ২০০৪ সালে বার্সার বড় দলে অভিষেকের পর এই ১৪ বছরে ৫৫৯ গোল; ভাবা যায়!

লা লিগায় মেসির গোলসংখ্যা ৩৮৭। বার্সার ইতিহাসে সর্বোচ্চ এই গোলদাতা স্পেনের শীর্ষস্থানীয় এই লিগেও সর্বোচ্চ গোলদাতা। চ্যাম্পিয়নস লিগে তাঁর গোলসংখ্যা ১০৩। বাকি গোলগুলো করেছেন কোপা দেল রে, স্প্যানিশ সুপার কাপ ও ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপে। পেলের রেকর্ডে ভাগ বসাতে আর ৮৪ গোল চাই মেসির। গত জুনে একত্রিশ পূর্ণ করা এই ফরোয়ার্ড কি পারবেন পেলের রেকর্ড ভাঙতে? যে গতিতে এগোচ্ছেন, তা আর দুই মৌসুম ধরে রাখতে পারলেই হয়তো সম্ভব। কিংবা তিন মৌসুম? প্রশ্নটা আসলে ভাঙতে পারবেন কি না তা নিয়ে নয়। কখন ভাঙবেন সেটাই প্রশ্ন।

মেসির যে ফিটনেস তাতে এটুকু বলা যায়, আরও তিন-চার মৌসুম অনায়াসে খেলা চালিয়ে যেতে পারবেন। অর্থাৎ পেলের রেকর্ডটি তাঁর ভেঙে দেয়ার সম্ভাবনাই বেশি। এরই মধ্যে গত মৌসুমে তিনি পেছনে ফেলেছেন গার্ড মুলারকে। বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে ৫২৫ গোল করেছিলেন ‘ডার বম্বার’খ্যাত জার্মানির সাবেক এই স্ট্রাইকার। যদিও বলা হয়, মুলারের হিসেবে আরও ২৭ গোল যোগ হবে। কারণ আঞ্চলিক টুর্নামেন্টে তাঁর গোলগুলো বিবেচিত হয়নি। তা যোগ হলেও কিন্তু মুলার মেসির পেছনে। আর তাঁর সামনে শুধুই পেলে। তবে সান্তোস কিংবদন্তি কত দিন সামনে থাকবেন সেটাই প্রশ্ন।

একদিন তোমার রেকর্ড ভেঙে দেব—আঙুল উঁচিয়ে মেসির ইঙ্গিতটা কি পেলেকে?  ছবি: এএফপি

সূত্র : প্রথম আলো, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮