দেশ ও জনকল্যাণের স্বপ্ন দেখুন : রাষ্ট্রপতি

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮) দেশবাসীর প্রতি দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করার স্বপ্ন দেখার আহ্বান জানিয়েছেন। নিজ এলাকা ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রামে পাঁচদিনের সফরের তৃতীয় দিন বুধবার তাঁর মিঠামইনে এক জনসভায় রাষ্ট্রপতি বলেন, “দেশ ও জনগণের কল্যাণ করার স্বপ্ন দেখুন। উন্নয়নের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আপনাদের বিরামহীন কাজ করতে হবে।”

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ গত এপ্রিলে দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ায় মিঠামইন উপজেলা পরিষদ স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক সরকারি কলেজ মাঠে এ সংবর্ধনার আয়োজন করে। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তাঁর দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে হাওর অঞ্চলের বিভিন্ন উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে সকলের প্রতি ভবিষ্যতে উন্নয়নের স্বপ্ন দেখার এবং নির্দিষ্ট বাস্তবানুগ বিষয়ে নিষ্ঠার সাথে কাজ করার আহ্বান জানান।

আবেগতাড়িত কণ্ঠে রাষ্ট্রপতি বলেন, “আমি একজন কৃষকের সন্তান। রাষ্ট্রপতি হয়েও আমি আমার শৈশবের স্মৃতি ভুলে যাইনি। কেউ যদি তার মূল ভুলে যায়, তাহলে সে প্রকৃত মানুষ না।”

তিনি বলেন, “আমি রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ… আপনারা জনগণই আমাকে ভোট দিয়ে আটবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত করেছিলেন। আমি আমার সাধ্যমত হাওর অঞ্চল তথা সারা দেশের উন্নয়ন নিশ্চিত করার চেষ্টা করছি।”

তিনি আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কথা উল্লেখ করে ক্ষমতায় গেলে জনগণের কল্যাণ নিশ্চিত করে এমন দলকে বেছে নেয়ার জন্য ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানান। কারও নাম উল্লেখ না করে রাষ্ট্রপতি সমাবেশে বলেন, “যারা নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য রাজনীতি করে তাদেরকে ভোট দিবেন না।”

তিনি জাতীয় সংসদ ও স্থানীয় সরকারসহ সর্বস্তরের নির্বাচনে ভালো প্রার্থীদের মনোনয়ন দেয়ার জন্য সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, “বাংলাদেশের সব জনগণকে এ বিষয়টি (নির্বাচনের প্রার্থী) নিয়ে ভাবতে হবে।” যেসব প্রার্থী নিজেদের স্বার্থকে প্রাধান্য দেয় এবং জনগণের প্রতারণা করে তাদেরকে নির্বাচিত না করার জন্য রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

মিঠামইন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবদুস শহীদ ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের (অষ্টগ্রাম, ইটনা, মিঠামইন) সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার রেজোয়ান আহাম্মদ তৌফিক, কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এম এ আফজাল, কলেজের অধ্যক্ষ মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আবদুল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য সমীর কুমার বৈষ্ণব এবং মিঠামইন সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শরীফ কামাল অ্যাডভোকেট প্রমুখ।

এর আগে বিকাল ৩টা ৪০ মিনিটে মিঠামইনে পৌঁছানোর কিছুক্ষণ পরে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ছয়টি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করেন। রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, পেশাজীবীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার জনগণ ফুলের তোড়া দিয়ে রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান। বাসস

ছবি সূত্র : বাসস