গ্রামের মেয়েদের নিয়ে পূর্ণিমার চিন্তাভাবনা

রূপালি পর্দার কাজ আপাতত করছেন না। ব্যক্তিজীবনকেই এখন প্রাধান্য দিচ্ছেন পূর্ণিমা। স্বামী ফাহাদকে নিয়ে সংসার সাজিয়ে আর একমাত্র কন্যাসন্তানের যত্ন-আত্তি নিয়েই কাটে তার সারাবেলা। এরই ফাঁকে ফেসবুকে টুকটাক সময় কাটান জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

ফেসবুকেই নিজের ঘরের খবর দিলেন পূর্ণিমা। তার দু’জন গৃহপরিচারিকা আছে। কিন্তু তাদের জানাশোনার পরিধি অনেক কম জানিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন তিনি।

পূর্ণিমা বলেছেন, ‘আমার যদি ক্ষমতা আর সামর্থ্য থাকতো তাহলে গ্রামের মেয়েদেরকে লেখাপড়া করানোর উদ্যোগ নিতাম। আমাদের বাসায় দুটি মেয়ে কাজ করে। তাদের কোনো ধারণাই নেই কোনো কিছু নিয়ে। আমি জিজ্ঞেস করলাম, আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রীর নাম জানো? একজন বললো- খালেদা জিয়া! অন্যজন বললো- শেখ হাসিনা। তারপর তারা প্রশ্ন করলো, ঢাকার মন্ত্রী কে?’

https://www.flickr.com/photos/128704290@N04/14936846444/

ফেসবুকে এই তথ্য জানানোর পর অনেকে পূর্ণিমাকে নানা পরামর্শ দিয়েছেন। মুশফিকুর রহমান গুলজারের পরিচালনায় তিনি অভিনয় করেছিলেন ‘আই লাভ ইউ’ ছবিতে। গুলজার লিখেছেন, ‘তুমি জনপ্রিয় মুখ। তুমি চাইলে একটা সংগঠন গড়ে কাজে নেমে পড়তে পারো। দেশি-বিদেশি অনেকের সহযোগিতা হয়তো পাবে। দেরি করো না, সময় বসে থাকে না। এটা একটা মহৎ কাজ হবে।’

‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী’ সিরিজের চিত্রনাট্যকার রুম্মান রশীদ খান বলেছেন, ‘আপনার মতো সহ-শিক্ষিত অভিনেত্রী চাইলেই অনেক কিছু করতে পারে। যদি চান তাহলে সমাজে ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারবেন। কারণ পূর্ণিমা যেখানেই পড়ে সেখানেই আলো ছড়ায়।’

https://www.flickr.com/photos/128704290@N04/14936846324/

পূর্ণিমা অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘লোভে পাপ পাপে মৃত্যু’। এতে তার সহশিল্পী ছিলেন রিয়াজ।