খেলা চলাকালে মাঠেই ইফতার সারলেন আয়াক্সের দুই ফুটবলার

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

বুধবার (৮ মে ২০১৯) রাতে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল নেদারল্যান্ডসের ক্লাব আয়াক্স এবং ইংল্যান্ডের ক্লাব টটেনহাম হটস্পার। ম্যাচে ৩-২ গোলে জিতে নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠেছে টটেনহাম।

তবে ম্যাচের জয়-পরাজয় ছাপিয়ে বড় হয়ে দেখা দিয়েছে অন্য আরেকটি বিষয়। সেটি হলো খেলার মাঝেই আয়াক্সের দুই ফুটবলার হাকিম জিয়েচ এবং নুসাইর মাজরুইয়ের খেলা চলাকালীন মাঠের মধ্যেই ইফতার করার ঘটনা।

আগেই ঠিক করা ছিলো টটেনহামের বিপক্ষে ম্যাচের দিনও রোজা রাখবেন আয়াক্সের দুই মুসলিম ফুটবলার হাকিম জিয়েচ এবং নুসাইর মাজরুই। কিন্তু বিপত্তি ছিলো একটি জায়গায়- ম্যাচ শুরুর পরেও প্রায় ৩০ মিনিট তাদের রোজা থাকতে হবে। কারণ তখনো ইফতারের সময় হবে না।

এটি জেনেই রোজা অবস্থায়ই খেলতে নেমে যান মাজরুই এবং জিয়েচ। ম্যাচের ২৪তম মিনিটে ইফতারের সময় হলে খেলা চলাকালীনই সাইডলাইন থেকে খেজুর নিয়ে দৌড়তে দৌড়তে সেটি খেয়ে রোজা ভাঙেন এ দুই ফুটবলার।

সাইডলাইন থেকে খেজুর হাতে নিয়ে, তা খেয়ে ইফতার করার ভিডিও রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গেছে ইন্টারনেট জগতে। প্রশংসার সাগরে ভাসছেন দুই তরুণ ফুটবলার জিয়েচ এবং মারজুই।

২৪তম মিনিটে ইফতার করার ১১ মিনিট পরে ম্যাচের ৩৫তম মিনিটেই গোলের দেখা পেয়ে যান জিয়েচ। সতীর্থ ফন ডি বিকের পাস থেকে গোলরক্ষককে পরাস্ত করে ম্যাচের স্কোরলাইন ২-০ করেন তিনি। তখনো মনে হচ্ছিলো ফাইনালে চলে যাবে আয়াক্সই।

কিন্তু ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে টটেনহামের ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার লুকাস মউরা অসাধারণ এক হ্যাটট্রিক করে দলকে নিয়ে যান ফাইনালে। দুই লেগ মিলে ৩-৩ গোলের সমতা থাকলে “এওয়ে” গোলের ভিত্তিতে এগিয়ে থাকায় ফাইনালের টিকিট পায় টটেনহাম।

সূত্র : জাগো নিউজ