কটিয়াদীতে তরুণীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ! ইউপি সদস্য আটক

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলায় বিয়ের প্রলোভনে এক তরুণীকে ডেকে নিয়ে প্রেমিক ও তার বন্ধুরা ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

কটিয়াদী উপজেলার লোহাজুরি এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার লোহাজুরি ইউনিয়নের দশপাখি গ্রামের চান্দু মিয়ার ছেলে সুমন পার্শ্ববর্তী উত্তর লোহাজুরি গ্রামের এক তরুণীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। গত ১৫ মে (বুধবার) রাত ৮টার দিকে বিয়ের প্রলোভনে তরুণীকে মোটরসাইকেলে করে নিয়ে যায় সুমন। পরে তরুণীটিকে বিভিন্ন স্থানে রেখে সুমন ও তার আরও দুই সহযোগী মিলে গণধর্ষণ করে।

সোমবার (২০ মে ২০১৯) সন্ধ্যার পর তরুণীকে বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে তারা সটকে পড়ে। বিষয়টি জানাজানি হলে নির্যাতিত তরুণীর বাবা বাদী হয়ে প্রেমিক সুমনসহ চারজনকে আসামি করে সেই রাতেই কটিয়াদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ মামলার এজাহারভুক্ত আসামি লোহাজুরি ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) আব্দুর রশিদকে আটক করেছে। মঙ্গলবার (২১ মে ২০১৯) তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

কটিয়াদী মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) শফিকুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে জানান, এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে লোহাজুড়ি ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মূল আসামি প্রেমিক সুমনসহ জড়িত অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

 

সূত্র : বাংলানিউজ