তৈলচিত্র

তৈলচিত্র

এস এম ইলিয়াস

এইতো সেদিন বিকেল বেলা দেখা তোমার সাথে
সওদা শেষে গঞ্জ থেকে যখন এলাম বাড়িতে।
বলো নি কথা একটি বারও করেছো অভিমান
পরীর মতন মুখটি তোমার হয়েছে এত ম্লান।

অপলকে তাকিয়েছিলাম তোমার দিকে আমি
কয়েক দিনের ব্যবধানে কত বদলে গেছ তুমি।
তোমার মুখের মিষ্টি হাসি মলিন হয়েছে আজ
চোখের নিচটা কালো হয়েছ, পড়ে গেছে ভাজ।

কত না হাসি লেগে ছিলো তোমার মুখ জুড়ে
অভিমানী এক ঝড় এসে সব নিয়ে গেল কেড়ে।
মুখে কথার ফুলঝুরি ছিলো কত চঞ্চল মেয়ে
মায়াবি তোমার মুখখানিতে থাকতাম শুধু চেয়ে।

সোনামুখ আজ মলিন হলো জানি না কিসের তরে
শুকায়ে গিয়েছো অনেক খানি বুঝিলাম ক্ষণ পরে।
কত চুপচাপ হয়ে গেছ আজ লুকিয়ে কত ব্যথা
আগে যখন হইতো দেখা কে থামাতো কথা।

তোমায় দেখে মনে পড়ে গেল পুরনো দিনগুলো
রাগ অভিমান ভালোবাসার কত না স্মৃতি ছিলো।
কত না তুমি রাগ করেছো, অতি ক্ষুদ্র বিষয় নিয়ে
ভুলিয়েছি সব দুঃখ কষ্ট কত ভালোবাসা দিয়ে।

সারাদিন মান ঘুরে বেড়াতাম সারাটা গাঁ জুড়ে
বাগান বাড়ি আম কুড়াতাম কালবৈশাখী ঝড়ে।
তোমায় নিয়ে ফুল তুলিতাম প্রতি সকাল বেলায়
বকুল ফুলের মালা গেঁথে পড়িয়ে দিতাম গলায়।

কাঁজল বিলে শাপলা তোলা হতো তোমায় নিয়ে
তোমার পুতুল আমার পুতুলে দিয়েছি কত বিয়ে
কাগজ ছিড়ে নাও বানাতাম সাজিয়ে কত ফুলে
তাল দিঘিতে ভাসিয়ে দিতাম চলতো হেলেদুলে।

নদীর পাড়ের বটগাছ তলায় বসে কাটাতাম বেলা
উঠতো জমে তোমার আমার ভালোবাসার মেলা।
নীল আকাশের নিচে বসে দেখতাম কাশফুল
ভালোবাসার ঢেউ খেলতো নদীর একুল ওকুল।

নদীর জলে উঠতো ভেসে তোমার রঙিন মুখ
তোমার সুখেই খুজে পেতাম আমার সকল সুখ।
স্রোতের উপর ভাসিয়ে দিতাম সকল দুঃখ ব্যথা
চুপটি করে বসে থাকতাম চোখে হতো সব কথা।

তোমায় নিয়ে নাও ভাসাতাম হয়ে আমি মাঝি
সাত সমুদ্র পারি দিতেও ছিলে তুমি রাজি।
বিকেল বেলা ঘুরে বেড়াতাম গাঁয়ের মেঠোপথে
সবুজ শ্যামল মাঠ পেরিয়ে চলে যেতাম হাটে।

হাটে গিয়ে সওদা করে আসতাম যেদিন বাড়ি
তোমার জন্য কালো টিপ আর নিতাম লাল চুড়ি।
তোমার জন্য আলতা নিতে কখনো হতো না ভুল
খোপা নিতাম বাধার জন্য তোমার কালো চুল।

সেসব জিনিস পেয়ে তুমি কত যে খুশি হতে
তোমার দিকে তাকিয়ে আমি পারতাম বুঝতে।
রাগের ছলে বলতে তুমি এত কিছু নাহি চাই
তোমার কাছে সারাজীবন ভালোবাসা যদি পাই।

একদিন যদি দেখা না হতো করতে তুমি আড়ি
এতদিন আজ কেমনে থাকো এই আমারে ছাড়ি।
কথা দিয়েছিলে সারা জনম রাখবে হাতে হাত
আজ কেন তবে নির্ঘুম কাটে আমার প্রতি রাত।

শপথ নিয়ে বলছিলে তুমি কখনো যাবে না দূরে
এত সহজেই ভুলে গেলে, আজি কেমন করে।
কত স্বপন দেখিয়েছিলে একসাথে বাঁচার আশা
কত সহজেই ভেঙে দিয়েছ আমার ভালোবাসা।

আমারে ছাড়িয়া চলে গেছ, কত পাষাণ তুমি হায়
কবর দেশেতে ঘুমায়ে রয়েছ নিঝুম নিরালায়।
ভেঙে গেছে সব স্বপ আশা, ছিল যত চিত্র বিচিত্র
আছে শুধু আজ আমার কাছে তোমার তৈলচিত্র।

 

এস এম ইলিয়াস : ছাত্র, ইংরেজি বিভাগ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। অর্থ বিষয়ক সম্পাদক, ঢাকাস্থ নিকলী ছাত্রপরিষদ।