ভাটি বরাটিয়ায় তুচ্ছ ঘটনায় গুলি, নিহত ১

কেএম স্বপন, বিশেষ প্রতিনিধি ।।

কিশোরগঞ্জের নিকলীতে রোববার (২৬ মে ২০১৯) সন্ধ্যায় প্রতিপক্ষের আগ্নেয়াস্ত্রের গুলিতে খোকন মিয়া (৪২) নামে এক ব্যক্তি নিহত ও আফজাল (১৮) নামে এক যুবক আহতের ঘটনা ঘটেছে। খোকন উপজেলার সিংপুর ইউনিয়নের ভাটি বরাটিয়া সিরাজের হাটি গ্রামের মনছুর আলী দয়ালের এবং আফজাল একই গ্রামের আরজু মিয়ার পুত্র। তারা পরস্পর চাচাত ভাই।

নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রোববার বিকালে বরাটিয়া মাঠে নিহত খোকনের পুত্রদ্বয় আপন (১৪) ও জীবন (১৬) ফুটবল খেলা দেখতে যায়। পাশের মুন্সিপাড়া গ্রামের ফুয়াদ মিয়ার পুত্র দিদারের (১৬) সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে যায়।

দিদার বাড়িতে খবর দিলে তার লোকজন আপন ও জীবনকে বলপূর্বক মুন্সিপাড়া গ্রামে নিয়ে আটকে রাখে। খবর পেয়ে খোকন মিয়ার চাচাত ভাই আফজালসহ কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে পুত্রদ্বয়কে ছাড়িয়ে আনতে যান। এ সময় উভয়পক্ষ উত্তেজিত হয়ে উঠে।

গুলিবিদ্ধ আফজাল

এক পর্যায়ে ফুয়াদ মিয়ার ভাই শফিকুল (৪০), সোহাগ (৩৮), জসিম (৩৫) ও ওয়াসিম (৩৩) আগ্নেয়াস্ত্র বের করেন। জসিম গুলি ছুঁড়ে। খোকন মিয়া ও আফজাল গুলিবিদ্ধ হন। কিশোরগঞ্জ সদরে নিয়ে যাওয়ার পথে খোকন মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। আফজালকে প্রথমে নিকলী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে কিশোরগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

খবর পেয়ে নিকলী থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ প্রেরণ করে। নিকলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন ভূঞা জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। জড়িতদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

উল্লেখ্য, ফুয়াদ মিয়ার পিতা আবু তাহের ও খোকন মিয়া পরস্পর চাচাত ভাই। দীর্ঘদিন ধরে উভয়ের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ বিদ্যমান। পূর্বশত্রুতার জেরেই এ হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে বলে এলাকাবাসী অনেকে অভিমত প্রকাশ করেন।