জারইতলায় মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে পুলিশে দিলো জনতা

সাফায়েত ইসলাম নূরুল ।।

কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলার জারইতলা ইউনিয়নের রোদারপুড্ডাসহ ৭/৮টি পাড়ার গ্রামবাসী ইয়াবা ব্যবসা বন্ধের লক্ষ্যে গত কয়েকদিন আগে নিকলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এরই প্রেক্ষিতে গত শুক্রবার বিকালে এলাকার সাবেক মেম্বার আলম মিয়া, মিন্নত আলী বড়বাড়ী পুকুরের পাড় দিয়ে আসার সময় ইয়াবা ব্যবসায়ী হিমেল মিয়া ও তার লোকজন তাকে (সাবেক মেম্বার আলম মিয়াকে) পথরোধ করে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পরক্ষণে এ খবর চারিদিকে ছড়িয়ে পরলে কয়েকশত গ্রামবাসী ইয়াবা ব্যবসায়ী হিমেল মিয়াকে (২৫) আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। রোদারপুড্ডা গ্রামের তাইজুল ইসলামের ছেলে হিমেল মিয়ার কাছ থেকে ১০০ পিস ইয়াবা, একটি ছোরাসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। একই সঙ্গে শতাধিক ইয়াবার প্যাকেট পুকুরে ফেলে দিয়েছে বলে লোকমুখে জানা যায়। উদ্ধারকৃত ছোরা দিয়ে ইয়াবা ব্যবসায়ী হিমেল মিয়া রোদারপুড্ডা গ্রামের সাবেক মেম্বার আলম মিয়াকে হত্যার উদ্দেশ্যে তাড়া করেছে বলে এলাকায় অভিযোগ উঠেছে।

এলাকাবাসীর সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েক বছর ধরে আল ইসলাম, হিমেল মিয়া ও তার সাঙ্গ-পাঙ্গরা ইয়াবা ব্যবসা করে আসছে। পুলিশ দেখেও না দেখার ভান করে আসছে। কোনো প্রতিকার না দেখে প্রায় সাত শতাধিক এলাকাবাসী পুলিশের মহাপরিদর্শক ঢাকা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর মহাপরিচালক ঢাকা, র‌্যাবের মহাপরিচালক ঢাকা, পুলিশ সুপার কিশোরগঞ্জসহ অন্যান্য দপ্তরে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের ব্যবসা বন্ধের বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ ব্যাপারে নিকলী থানার অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন ভূঞা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।