সৌম্যকে রোনালদোর সাথে তুলনায় ক্ষুব্ধ ভারতীয়রা

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ব্যাটিংয়ে দ্যুতি ছড়াচ্ছেন সাকিব, লিটন ও মুশফিক। বল হাতে অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিন বেশ সফল হলেও পিঠের চোটে আপাতত খেলতে পারছেন না তিনি। আর সাইফউদ্দিনের অনুপস্থিতি যেন লাঘব করতে বল হাতে এগিয়ে এলেন সৌম্য সরকার। ব্যাট হাতে এখন পর্যন্ত সেভাবে উজ্জ্বল হতে না পারলেও গত ২০ জুন টেন্টব্রিজে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দারুণ বল করেছেন এই পার্ট টাইমার বোলার।

টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে দুই অসি ওপেনার তুলোধুনো করতে থাকে বাংলাদেশি বোলারদের। ডেভিড ওয়ার্নারের ব্যাট চালানো দেখে মনে হচ্ছিল পাড়ার ছেলেদের মোকাবেলা করছেন তিনি। ইনিংসের ২০ ওভার অতিক্রম করার পরেও এই দু’জনকে সাজঘরে ফেরাতে পারছিলেন না বাংলাদেশের মূল বোলাররা।

এমন পরিস্থিতিতে পার্ট টাইমার বোলার সৌম্যের হাতে বল তুলে দেন মাশরাফি। অনেকটা বাজির মতোই বলা চলে। আর প্রথম ওভারেই সে বাজিমাত করেন সৌম্য। সেট হয়ে যাওয়া জুটি ভেঙে দেন তিনি। ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে থাকা ফিঞ্চকে সাজঘরের পথ দেখান সৌম্য।

যে কোনো বোলারেরই এমন উইকেট প্রাপ্তির উল্লাস একটু বেশিই হতে পারে। সেটাই করে দেখালেন সৌম্য। আর তার সেই উদযাপনের স্টাইল নজর কাড়ে আইসিসির।

আইসিসির মতে, পর্তুগিজ ফুটবল তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো যেভাবে গোল উৎসব উদযাপন করেন, সৌম্য ঠিক তেমনটাই করেছে। আইসিসির করা টুইটে এমনটাই দেখা গেল।

ওই ম্যাচের মাঝেই আইসিসি তাদের অফিসিয়াল টুইটার পেজে সৌম্য সরকারের উইকেট প্রাপ্তির উদযাপনের সঙ্গে রোনালদোর উদযাপনের ছবি জোড়া লাগিয়ে প্রকাশ করে। ছবির ক্যাপশনে লেখা হয়, “সেপারেটেড এট বার্থ?”

কিন্তু আইসিসির এমন ভাবনাকে মেনে নিতে পারেনি বেশ কিছু নেটিজেন। ওই ছবি প্রকাশের পর থেকে রিটুইটে নানারকম ব্যঙ্গাত্মক কমেন্ট জমা হতে থাকে। বিশেষ করে ভারতীয়দের পক্ষ থেকে এ নিয়ে বেশ আপত্তি তুলতে দেখা যায়। মিম বানিয়ে, ট্রল করে সেই পোস্ট ভাসিয়ে দেন তারা।

তাদের অনেকেই সিআরসেভেনের সঙ্গে সৌম্যকে এভাবে মেলানো দেখতে চাননি। অনেকে একটু বেশি ক্ষুব্ধ হয়ে আইসিসি পেজের এডমিনদের “নির্বোধ” বলেন।

নির্দোষ সৌম্যর ওপরেও চড়াও হয়েছেন কেউ কেউ। সৌম্যকে নিয়ে নানা নেতিবাচক কথায় মেতে ওঠে তারা। তাকে “গাধা” বলেও গালি দেয় কেউ কেউ।

এসব অভব্য কমেন্টের কারণে অনেকে আবার আইসিসির কাছে পোস্টটি মুছে দেয়ার দাবি জানায়। যদিও এসবের কোনোটাতেই কর্ণপাত করেনি আইসিসি। এতো নেতিবাচক কমেন্ট আসার পরও ওই পোস্টটি পেজ থেকে সরায়নি তারা।

প্রসঙ্গত, গত ২০ জুনের অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে যেখানে মাশরাফি আট ওভারে ৫৬ রান, মুস্তাফিজ নয় ওভারে ৬৯ রান এবং সাকিব ছয় ওভারে ৫০ রান দেন সেখানে আট ওভার বল করে ৫৮ রান খরচায় তিন উইকেট নেন সৌম্য। সে ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ৩৮২ রানের টার্গেট ছুতে গিয়ে ৩৩৩ রানে শেষ হয় বাংলাদেশের ইনিংস।

সূত্র : যুগান্তর

Similar Posts

error: Content is protected !!