ধামইরহাটে রাতের আঁধারে অর্ধশতাধিক বনজ গাছ কাটলেন প্রতিপক্ষ

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি ।।

নওগাঁর ধামইরহাটে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে রাতের আঁধারে বাগানের ৬৩টি আকাশমুনি গাছ কাঁটার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জমির মালিক বাদী হয়ে ধামইরহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মহব্বতপুর (হরিতকীডাঙ্গা) গ্রামের পিতা মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে মো. জবেদুল আলম পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে প্রায় ৮০ বছর থেকে উক্ত জমি শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ করে আসছে। তফসিলি সম্পত্তিতে জবেদুল আলম ৪ বছর আগে আকাশমুনিসহ বিভিন্ন বনজ প্রকৃতির গাছ রোপণ করলে চলতি মাসের ১২ জুলাই রাতের আঁধারে গাছগুলো কর্তন করে বলে অভিযোগে জানা যায়। এ বিষয়ে বাগান মালিক জবেদুল ইসলাম জানান, আমি পৈত্রিক সম্পত্তি দীর্ঘ ৬ যুগের অধিক সময় ধরে ভোগ দখলে আছি, বিবাদী অন্যায়ভাবে আমার গাছ কেটে প্রায় ৭০ হাজার টাকার ক্ষতি করেছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত চকযদু গ্রামের মো. হারুনুর রশিদের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস (৪০) গাছ কাটার কথা স্বীকার করে বলেন, ক্রয়সূত্রে প্রাপ্ত আমার ওই জমিতে জবেদুল ইসলাম জোর করে গাছ লাগিয়েছেন। এ জন্য আমি কেটে দিয়েছি, এখন বিচারের মাধ্যমে সমাধান হবে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান বলেন, জমিটি অনেক দিন ধরেই জবেদুল ইসলাম ভোগদখলে আছেন। জমির মালিকানা থাকলে আইন-আদালত আছে। কিন্তু রাতের আঁধারে গাছ কাটা ভালো কাজ নয়। ধামইরহাট থানার ওসি জাকিরুল ইসলাম বলেন, ঘটনার বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি, জিডির মাধ্যমে আদালতে প্রসিকিউশন দেয়া হবে।

Similar Posts

error: Content is protected !!