“নেইমার বিশ্বের সেরা তিন খেলোয়াড়ের একজন”

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

এক সময়ে চিরশত্রু শিবিরে ছিলেন নেইমার। মাঠে তো বেশ কয়েকবারই তর্ক ছাপিয়ে হাতাহাতি হওয়ার মতো পরিস্থিতিও হয়েছে। সেই খেলোয়াড়কে প্রশংসা বাণে ভাসিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়ক সের্জিও রামোস। নেইমারকে বিশ্বের সেরা তিন জন খেলোয়াড়ের মধ্যে একজন খেলোয়াড় বলেছেন এ স্প্যানিশ তারকা।

অবশ্য বার্সেলোনার সাবেক এ তারকার প্রশংসা অনেক আগে থেকেই করেন রামোস। ২০১৭ সালে নেইমারকে রিয়ালে আনার গুঞ্জন শুরু হতেই নানা ইঙ্গিত দিয়ে তাকে দলে চেয়েছিলেন। চলতি মৌসুমে হয়তো সতীর্থও হতে পারেন। তাকে পেতে চেষ্টা করে যাচ্ছে রিয়াল। মূলত ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো দলে থাকা অবস্থা থেকেই নেইমারকে পেতে চেষ্টা করে যাচ্ছে দলটি। পিএসজির সঙ্গে নেইমারের সম্পর্ক খারাপ হওয়ায় এবার সুযোগটা চড়া। কোন মতে প্যারিস ছাড়তে পারলেই বাঁচেন নেইমার। সে সুযোগ বেশ কয়েকবার প্রস্তাব দিয়েছিল রিয়াল। যদিও তাদের কোন প্রস্তাব এখনও গ্রহণ করেনি পিএসজি।

তবে গুঞ্জন থেমে নেই। বিশেষ করে আগের দিন ভায়াদলিদের সঙ্গে ড্র হওয়ার পর নেইমারকে দলে চাচ্ছেন রিয়াল সমর্থকরা। সংবাদ সম্মেলনেও রামোসকে এমন প্রশ্নবাণে পড়তে হয়েছে। সেখানেই রিয়াল অধিনায়ক বলেন, ‘নেইমার বিশ্বের সেরা তিন খেলোয়াড়ের মধ্যে একজন খেলোয়াড়।’

নেইমারের প্রশংসা করলেও তাকে দলে আনার ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি রামোস। কৌশলে এড়িয়ে যান তিনি, “সাইনিং নিয়ে আলোচনা একটি মহান ক্লাবের সম্মান কমিয়ে দেয়। এ ধরনের আলোচনা রিয়াল মাদ্রিদে সবসময়ই হয় এবং এটা আরও বাড়ে যখন ট্রান্সফার উইন্ডো খোলে। এ ধরনের ব্যাপারে খেলোয়াড়দের ঠাণ্ডা থাকা উচিৎ।”

এদিকে নেইমারকে দলে নেওয়ার জন্য দারুণ লোভনীয় এক প্রস্তাব ছুঁড়ে দিয়েছিল লস ব্লাঙ্কোসরা। ১০০ মিলিয়ন ইউরোর পাশাপাশি দিতে চেয়েছিল তিন ফুটবলারকেও। ফরাসি ক্রীড়া বিষয়ক গণমাধ্যম এল’একিপের সংবাদ অনুযায়ী, হামেস রদ্রিগেজ ও গ্যারেথ বেল এবং গোলরক্ষক কেইলর নাভাসের মতো খেলোয়াড় ছিলেন এ তালিকায়।

রোনালদো চলে যাওয়ার পর থেকেই আক্রমণ ভাগে সমস্যা লেগেই আছে রিয়ালের। এডেন হ্যাজার্ডকে দলে নিলেও ইনজুরির কারণে এখনও মাঠে পাচ্ছে না দলটি।দুই বছর পর রিয়ালে জার্সিতে ফিরে হতাশা ছড়িয়েছেন হামেস রদ্রিগেজ। ব্যর্থ হয়েছেন নতুন যোগ দেওয়া সার্বিয়ান তারকা লুকা জোভিচও। তাই নেইমারের মতো তারকাকে পেতে চেষ্টা করছে দলটি।

সূত্র : ডেইলি স্টার বাংলা