গলায় মাছের কাঁটা বিঁধলে কীভাবে নামাবেন?

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

আমরা মাছ যখন খাই, তখন একটু বেসামাল হলেই গলায় মাছের কাঁটা বিঁধবে এটা স্বাভাবিক। সাধারণত তা কীভাবে নামিয়ে ফেলতে হয়, সে কৌশলও আমরা ছোট থেকেই রপ্ত করে ফেলি। কিন্তু বেকায়দায় আটকে যাওয়া কাঁটা বড় খচখচিয়ে নিজের উপস্থিতি জানান দিতেই থাকে। সেক্ষেত্রে কয়েকটি ঘরোয়া পদ্ধতি ট্রাই করে দেখুন আগে। মনে রাখবেন, সাধারণত বাড়িতে আমরা যেসব উপায়ের সাহায্য নিই, সেই পদ্ধতিগুলি সাধারণত দু’ভাবে কাজ করে। হয় ধাক্কা দিয়ে কাঁটা নামিয়ে দেয়, না হলে কাঁটাকে গলিয়ে দেয়। তবে এর কোনোটিতেই কাজ না হলে বুঝতে হবে যে ডাক্তারের সাহায্য নেওয়া ছাড়া আপনার সামনে আর কোনো রাস্তা খোলা নেই।

ধাক্কা দিয়ে নামানোর উপায়
পানি খান : একটা বড়ো গ্লাসে পানি নিয়ে, সম্ভব হলে অল্প উষ্ণ পানি নিয়ে আলগোছে খান। পানির স্রোতে কাঁটার নেমে যাওয়ার কথা।

ভাতের দলা/ পাউরুটির মণ্ড গিলে ফেলুন : ভাত ভালো করে চটকে নিয়ে মণ্ড পাকিয়ে নিন, তার পর সেটা পানি দিয়ে গিলে ফেলুন। একইভাবে পাউরুটিও ব্যবহার করতে পারেন। দুটোই ধাক্কা দিয়ে কাঁটাটাকে নিচে নামিয়ে দেবে।

কলা চটকে খেয়ে নিন : পাকা কলা সামান্য চিবিয়ে বা চটকে নিয়ে গিলে ফেললেও একই কাজ হবে। বেশি চিবোবেন না।

মার্শমেলোর মণ্ড : একটি মার্শমেলো চিবিয়ে নিন অল্প করে, তার পর মণ্ডটি গিলে ফেলুন। চিনির চটচটে আঠায় কাঁটা আটকে গিয়ে নেমে যাবে।

গলিয়ে ফেলার উপায়
এক টুকরো লেবু আর নুন : এক টুকরো পাতিলেবু নিন, তার মধ্যে ভালো করে নুন মাখিয়ে রসটা চুষে চুষে খেয়ে ফেলুন। লেবুর অ্যাসিডিটি আর নুনের খরভাব কাঁটাকে গলিয়ে দেবে।

সোডা বা সফট ড্রিঙ্ক আর লেবুর মিশ্রণ : আপনার প্রিয় কোনো সফট ড্রিঙ্কে মিশিয়ে নিন লেবুর রস। তার পর ছোট ছোট চুমুক দিয়ে খেয়ে ফেলুন। দিনে বার দুই এমন করতে পারলেই কাঁটা নিশ্চিতভাবে গলে যাবে।

ভিনিগার আর পানির মিশ্রণ : ভিনিগার আর পানির মিশ্রণেও অ্যাসিড থাকে প্রচুর, সেই অ্যাসিডের কারণেই মাছের কাঁটা নরম হয়ে গলা থেকে নেমে যাবে।

[সংগৃহীত]