নিকলীতে গুলিবিদ্ধ ৩, গ্রেপ্তার ১

খাইরুল মোমেন স্বপন, বিশেষ প্রতিনিধি ।।

কিশোরগঞ্জের নিকলীতে প্রতিপক্ষের আগ্নেয়াস্ত্রে ৩ জন গুলিবিদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯) দুপুরে মাসুদ রানা বিপ্লব (৪৫) নামে এক যুবককে আটক করেছে নিকলী থানা পুলিশ। তিনি উপজেলার মজলিশপুর গ্রামের আতকাপাড়ার মৃত রইমুদ্দিনের পুত্র।

থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নিকলী উপজেলা কারপাশা ইউনিয়নের মজলিশপুর গ্রামের আক্কাস আলী ও মজলু মিয়ার মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিলো। ৬ সেপ্টেম্বর শুক্রবার রাত ৯টায় বিরোধ মীমাংসায় নিকলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আহসান মো. রুহুল কুদ্দুস ভূইয়া জনির মজলিশপুর বাজারের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে একটি শালিস বৈঠক বসে। চেয়ারম্যানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে মীমাংসার আলোচনাকালীন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে একটি পক্ষ।

এক পর্যায়ে মাসুদ রানা বিপ্লব ও তার ভাই কায়েসসহ একই গ্রামের মজলু মিয়ার ছেলে জামান তাদের দলবল আগ্নেয়াস্ত্র ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা চালায়। এ সময় পাইপগানের গুলিতে আহত হয় মজলিশপুর গ্রামের ফকিরবাড়ীর কডু ফকিরের ছেলে দুলাল (৫০), মৃত নিদু বেপারীর ছেলে সেলিম (৩৮) ও সালামের ছেলে ইকবাল (৪০)। রামদার আঘাতে আহত হয় একই গ্রামের চান্দালীর ছেলে ইসলামুদ্দিন (৪৫)।

এলাকাবাসী ও স্বজনরা আহতদের নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইসলাম উদ্দিনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। গুলিবিদ্ধদের কিশোরগঞ্জ সদর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

এ বিষয়ে নিকলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নাছির উদ্দিন ভূইয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অস্ত্র ও আসামিদের ধরতে চেষ্টা অব্যাহত।

নিকলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আহসান মো. রুহুল কুদ্দুস ভূইয়া বলেন, শালিশি বৈঠকে এমন ঘটনা বিরল ও দুঃখজনক। আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ব্যবস্থা নিতে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।

Similar Posts

error: Content is protected !!