ধামইরহাটে ইউপি চেয়ারম্যানের ভাইয়ের বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি ।।

নওগাঁর ধামইরহাটে ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই কর্তৃক প্রতিবন্ধি কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণচেষ্টার শিকার প্রতিবন্ধী মেয়েটির প্রাথমিক ডাক্তারী পরীক্ষা ইতিমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে। এ বিষয়ে মেয়েটির বড়ভাই মেহেদি হাসান বাদী হয়ে ধামইরহাট থানায় ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-১০,তারিখ-১২/১০/১৯ ইং।

থানার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ১২ অক্টোবর বৈকাল ৪টায় উপজেলার উমার ইউনিয়নের অন্তর্গত উত্তর দূর্গাপুর গ্রামের জনৈক ব্যক্তির মানসিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধি কিশোরীকে (১৪) ফুসলিয়ে উমার ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের ভাই ও মেয়েটির প্রতিবেশি সিরাজুল ইসলাম (৩৬) তার বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ওই মেয়েটিকে ঘরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। পরবর্তীতে শিশুটির মা মেয়ের খোঁজে সিরাজুল ইসলামের বাড়িতে যায় এবং তার ঘর থেকে বিবস্ত্র অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে। পরে স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়।

দুর্গাপুর গ্রামে মৃত মনছের মণ্ডলের ছেলে সিরাজুল ইসলাম স্থানীয় উমার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান হোসেনের ছোট ভাই। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান হোসেন বলেন, মেয়েটি মানসিক প্রতিবন্ধি। সব সময় ছুটাছুটি করে, এক জায়গায় স্থির থাকে না। তাছাড়া কাউকে দেখলে সে তার উপর ওঠতে চায়। অনেক সময় নিজের পরনের কাপড় নিজে খুলে ফেলে। ঘটনার সময় আমার ভাই বাড়ির দোতলায় ঘুমিয়ে ছিল। এ ধরনের কোন ঘটনা আমার জানা মতে ঘটেনি।

ধামইরহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা. আরাফাত ইমাম বলেন, মেয়েটিকে প্রাথমিকভাবে পরীক্ষা করা হয়েছে। ধর্ষণ বা ধর্ষণচেষ্টার কোন আলামত পাওয়া যায়নি। তারপরও আমরা তাকে জেলা সদরের হাসপাতালে পরীক্ষার জন্য রেফার্ড করেছি। ধামইরহাট থানার ওসি মো. জাকিরুল ইসলাম বলেন, এব্যাপারে মেয়েটির ভাই বাদী হয়ে শিশু ধর্ষণের চেষ্টা আইনে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। আসামিকে গ্রেফতারে পুলিশ কাজ করছে।