চংশোলাকিয়ায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্বামী আটক

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

গলায় কম্বল চাপা দিয়ে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর মরদেহ বিছানায় কম্বল দিয়ে মুড়িয়ে রাখে স্বামী সুমন মিয়া (২১)। পরে সে ঘর ছেড়ে পালিয়ে যায়। আদালতে দেয়া ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে স্ত্রী জুয়েনা আক্তার (১৯) কে হত্যার এমন নিষ্ঠুর বর্ণনা দিয়েছে সুমন মিয়া।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) বিকাল ৫টা থেকে পৌনে ৬টা পর্যন্ত কিশোরগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. রফিকুল বারীর খাস কামরায় ১৬৪ ধারায় সুমন মিয়ার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে তাকে কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

সুমন মিয়া কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মহিনন্দ ইউনিয়নের চংশোলাকিয়া এলাকার আব্দুর রহিম ভুট্টোর ছেলে। অন্যদিকে নিহত জুয়েনা আক্তার পার্শ্ববর্তী কাশোরারচর গ্রামের অলি নেওয়াজের মেয়ে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার এসআই পার্থ শেখর ঘোষ ১৬৪ ধারায় সুমন মিয়ার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার তদন্ত সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) রাতের খাবার শেষে রাত ১০টার দিকে চংশোলাকিয়া এলাকার বাড়িতে সুমন মিয়ার ডাকে স্ত্রী জুয়েনা দরজা খুলে দেয়। শ্বাসকষ্টের কারণে জুয়েনা বিছানায় শুয়ে পড়লে সুমন তার বুকে হাত রাখে। এ সময় জুয়েনা স্বামী সুমনের হাত সরিয়ে দিয়ে তার গলা চেপে ধরে।

নিজেকে ছাড়িয়ে নিয়ে সুমন ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রীর উপর চড়াও হয়। বিছানায় থাকা কম্বল দিয়ে সে সজোরে স্ত্রী জুয়েনার গলা চেপে ধরে। এক সময় স্ত্রী নিস্তেজ হয়ে পড়লে সে ঘর ছেড়ে পালিয়ে যায়।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মো. আবুবকর সিদ্দিক পিপিএম জানান, বুধবার (১৬ অক্টোবর) সকাল ৮টায় দিকে চংশোলাকিয়া এলাকার শ্বশুরবাড়িতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর মরদেহ পড়ে থাকার খবরে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

এছাড়া অভিযুক্ত স্বামী সুমনকে ধরতে পুলিশ তৎপরতা শুরু করে। নয় ঘন্টার মধ্যে বিকাল ৫টার দিকে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার রশিদাবাদ ইউনিয়নের সগড়া বিশ্বরোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে সুমনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তারের পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে পারিবারিক কলহের কারণে স্ত্রীকে হত্যার কথা স্বীকার করে সুমন। এ ঘটনায় নিহতের বাবা অলি নেওয়াজ বাদী হয়ে সুমনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

সূত্র : কিশোরগঞ্জ নিউজ