শিবগঞ্জে ৫দিন অনশনের পর বিয়ে হলো অনন্যার

মহাস্থান (বগুড়া) প্রতিনিধি ।।

বগুড়ার শিবগঞ্জে বিয়ের দাবীতে কলেজছাত্রী অনন্যা খাতুন গত ৫দিন যাবৎ নয়নের বাড়িতে অনশনের পর বিয়ে সম্পন্ন। জানা গেছে, সোমবার বগুড়ার শিবগঞ্জ পৌর এলাকার ৯নং ওয়ার্ডে ভূরঘাটা গ্রামের বিশিষ্ট চাতাল ব্যবসায়ী আব্দুল জলিলের ছেলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের ছাত্র নয়ন মিয়ার (২৬) সঙ্গে বগুড়া শহরের কাঠনালপাড়া এলাকার বকুল মণ্ডলের মেয়ে অনন্যা খাতুন (২০) তাদের দু’জনের দীর্ঘদিন যাবত প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নয়ন অনন্যাকে বিয়ে করবে বলে দিনের পর দিন তালবাহানা করতে থাকে।

এক পর্যায়ে নয়ন কৌশলে অনন্যার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এর প্রেক্ষিতে কলেজ ছাত্রী অনন্যা কোন উপায় না পেয়ে গত সোমবার দুপুর থেকে প্রেমিক নয়নের বাড়িতে অনশন শুরু করে। অনন্যা গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে স্থানীয় ডাক্তার চিকিৎসা সেবা দেন। অনন্যা গুরুতর অসুস্থ্য হওয়ায় নয়নের বাবা-মা বাধ্য হয়ে তাকে পুত্রবধূর স্বীকৃতি দিয়ে বাড়িতে তুলে নেন।

গত শুক্রবার রাত অনুমান ১১টার দিকে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে ৩ লক্ষ ৪শত ১ টাকা দেনমোহর ধার্য্য করে অনন্যা ও নয়নের বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর আবু সাইদ, সাইফুল ইসলাম, আফজাল হোসেন, ধলু মিয়া, আব্দুল হামিদসহ অনেকে।

এ ব্যাপারে নয়নের বাবার সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমার ছেলে ও পুত্রবধূ আমার বাড়িতে। আমার ছেলে নয়নের সাথে অনন্যার বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। অনন্যা এখন থেকে আমার পুত্রবধূ।