অভিষেকে হ্যাটট্রিক, বিশ্বরেকর্ড করল পেসার রবি

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

জীবনের ২৮ বসন্ত পেরিয়ে সুযোগ পেয়েছেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলার। সুযোগের সদ্ব্যবহার করে নিজের অভিষেক ম্যাচেই অবিশ্বাস্য এক কীর্তিতে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন ভারতের মধ্য প্রদেশের বাঁহাতি পেসার রবি যাদভ। নিজের প্রথম ওভারেই করেছেন হ্যাটট্রিক।

আজ (সোমবার) রঞ্জি ট্রফির এলিট বি গ্রুপের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল মধ্য প্রদেশ ও উত্তর প্রদেশ। রবি নিজে উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা হলেও, অভিষেক হয়েছে মধ্য প্রদেশের হয়। আর নিজের উত্তর প্রদেশের বিপক্ষে বিশ্ব রেকর্ডটি গড়েছেন তিনি।

ম্যাচে আগে ব্যাট করে ২৩০ রানে অলআউট হয়ে যায় মধ্য প্রদেশ। রবি অপরাজিত থাকেন ১২ বলে ৭ রান করে। দিনের তখনও বাকি ছিলো প্রায় ঘণ্টাখানেক সময়। শেষ বিকেলে ব্যাটিং করতে নামে উত্তর প্রদেশ।

দুই ওপেনার আলমাস শওকত ও আরিয়ান জুয়েল খেলছিলেন দেখেশুনে। প্রথম ৬ ওভারে কোনো বিপদ ঘটতে দেননি তারা। সপ্তম ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে আসেন রবি যাদভ। নিজের প্রথম ওভারে তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম বলে আউট করেন আরিয়ান জুয়েল, অঙ্কিত রাজপুত ও সামির রিজভী।

ব্যস! হয়ে যায় হ্যাটট্রিক। একইসঙ্গে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক ম্যাচে নিজের প্রথম ওভারেই হ্যাটট্রিক করা প্রথম বোলারও বনে যান রবি। প্রায় দেড়শ বছরের ক্রিকেট ইতিহাসে তার আগে অন্য কোনো বোলারই নিজের অভিষেক ম্যাচের প্রথম ওভারে হ্যাটট্রিক করতে পারেননি।

প্রায় ৮০ বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার রিচি ফিলিপস প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নিজের প্রথম ওভারেই হ্যাটট্রিক করেছিলেন। কিন্তু সে ম্যাচের আগে আরও ৪টি ম্যাচ খেলেছিলেন ফিলিপস। যেগুলোতে একবারও বোলিং করেননি তিনি। এছাড়া জাভাগাল শ্রীনাথ, সলিল আঙ্কোলা এবং অভিমান্যু মিথুনসহ ৭ জন ভারতীয় বোলার অভিষেক ম্যাচেই হ্যাটট্রিক করেছিলেন। কিন্তু কোনোটাই তাদের প্রথম ওভারে ছিলো না।

নিজ বাসস্থান উত্তর প্রদেশের বিপক্ষেই রেকর্ডটি হওয়ায় মিশ্র অনুভূতি কাজ করছে রবির। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে তিনি বলেন, “আমি জানি না এটা সৌভাগ্য, নিয়তি নাকি অন্য কিছু। কিন্তু এই রেকর্ডটা এলো উত্তর প্রদেশের বিপক্ষে। আমি উত্তর প্রদেশের হয়েই ক্রিকেট খেলে বড় হয়েছি। কিন্তু বয়সভিত্তিক পর্যায়ের পর আর সে দলে সুযোগ পাইনি। তবে আমি খুশি যে, দেরিতে হলেও রঞ্জি ট্রফি খেলতে পারলাম।”