কুলিয়ারচরে ভাবি হত্যার দায়ে দেবরের মৃত্যুদণ্ড

আমা‌দের নিকলী ডেস্ক ।।

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে ভাবিকে হত্যার দায়ে দেবর বাছির উদ্দিনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অপর পাঁচ আসামিকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

কিশোরগঞ্জের প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আব্দুর রহিম সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত বাছির উদ্দিন পলাতক রয়েছেন। তিনি কুলিয়ারচর উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের মনির উদ্দিনের ছেলে। বেকসুর খালাস পাওয়া আসামিরা হলেন- শাহ আলম, ফজলুর রহমান, আবুল হাসিব, মুর্শিদ মিয়া ও খুর্শিদ মিয়া।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর গ্রামের জজ মিয়ার সঙ্গে তার স্ত্রী আম্বিয়া খাতুনের পারিবারিক মনোমালিন্য ছিল। এ অবস্থায় জজ মিয়া মৌখিকভাবে তার স্ত্রী আম্বিয়াকে তালাক দিলে তিনি বাবার বাড়ি চলে যান। কিছুদিন পর আবারও তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন জজ মিয়া। স্ত্রীকে বাড়িতে রেখে তিনি বিদেশ চলে যান। কিন্তু পরিবারের লোকজন আম্বিয়াকে বাড়িতে নিয়ে আসার বিষয়টি মেনে নিতে পারেনি। ২০০২ সালের ২ মে আম্বিয়ার দেবর বাছিরসহ কয়েকজন সিঁধ কেটে বসতঘরে ঢুকে আম্বিয়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

এ ঘটনায় ৩ মে নিহতের চাচা কায়েস উদ্দিন বাদী হয়ে ৯ জনকে আসামি করে কুলিয়ারচর থানায় মামলা করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে একই বছরের ১৪ অক্টোবর ৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে জীবন কুমার রায় ও আসামিপক্ষে ক্ষিতিশ দেবনাথ মামলাটি পরিচালনা করেন।

সূত্র : জা‌গো নিউজ