নিকলীতে করোনা সন্দেহে এক পরিবার কোয়ারেন্টিনে

খাইরুল মোমেন স্বপন, বিশেষ প্রতিনিধি ।।

প্রবাস ফেরত ও করোনা উপসর্গ সন্দেহে ৮ ব্যক্তির কোয়ারেন্টিনের পর এবার আক্রান্ত সন্দেহে নূরুল ইসলাম মাস্টার নামের এক সাবেক প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকের পরিবারকে কোয়ারেন্টিনে দিয়েছে উপজেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটি। শুক্রবার বিকালে এ ঘটনা নিশ্চিত করেছেন নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা খান নূরুদ্দিন মো. জাহাঙ্গীর।

জানা যায়, নিকলী উপজেলা সদরের বড়হাটি গ্রামের বাসিন্দা নূরুল ইসলাম মাস্টার। তার দুই পুত্র কবির ও সোহাগ প্রবাসি। দুই পুত্রবধূ, দুই নাতি, স্ত্রী ও তৃতীয় পুত্র উজ্জ্বলকে (২৫) নিয়ে তার পরিবার। দুইপুত্র প্রবাসেই অবস্থান করলেও উজ্জ্বল কয়েকদিন আগে ঢাকা থেকে বাড়ি আসে।

করোনা আক্রান্তের উপসর্গ নিয়ে সর্দি জ্বরে পরিবারটির একাধিক ব্যক্তি আক্রান্ত হয়। স্থানীয় চিকিৎসায় উপশম না হওয়ায় উজ্জ্বল আইইডিসিআর’র হটলাইনে বৃহস্পতিবার ফোন করে। ফোন কলের সূত্র ধরে একই দিন বিকালে নিকলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামছুদ্দিন মুন্না ও নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা খান নূরুদ্দিন মো. জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে একটি দল পরিবারটিকে কোয়ারেন্টিনে দিয়েছে। এর আগে এ উপজেলায় ৮ ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়।

খান নূরুদ্দিন মো. জাহাঙ্গীর জানান, আবহাওয়া পরিবর্তনজনিত কারণেও এখন অনেকের সর্দি কাশি হচ্ছে। তবে এই পরিবারটি করোনায় আক্রান্ত কি না তা জানতে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। বাড়িটির সামনে সামাজিক যোগাযোগ বন্ধে সাইনবোর্ড দেওয়া হয়েছে।