ড. গোলসান আরা বেগমের দু’টি কবিতা

ড. গোলসান আরা বেগম ।।

কেন হৃদয় পোড়ায়

আগে বুঝিনি
তোমার এতো গভীর প্রেম সমতল বুকে
পোড়াও পোড় জ্বলে মর জ্বালায়
ভালোবাসি শব্দটি কেন দাওনি ঠোঁটে লিখে
না বলা কথা
কোথাও হলো না মোটা দাগে লেখা
কেউ জানলো না, জানতে দিলে না
কত অভিমান চোখের শিশিরে ছিলো মাখা
প্রতিদিন আড্ডা হতো
তুমি নিয়মিত নীরব শ্রোতা ছিলে
রসালো কথায় গড়িয়ে যেতো বেলা
জানতে চাইনি, দাওনি সুযোগ
সিগারেটের ধোঁয়ায় কি পুড়িয়ে ছিলে
কখনও এক পায়ে দাঁড়িয়ে থাকতে
কেন এলে, কিছুই বলতে না
আমারই ব্যর্থতা কেন বুঝিনি চোখের ভাষা
বুক ভিজে যায়। কেন প্রেমের গন্ধ ছুঁয়ে দেখিনি
এ কেমন নিষ্ঠুরতা
আমাকে পোড়ালে, নিজেও নিঃশেষ হলে
দু’দিকে পথ গেলো ঘুরে
কেন হৃদয় পোড়ায়, কখনও ভাবতে বসলে

 

আমার আঁকা ছবি

সেই মেঠো পথে ঘরের আঙিনায়
সূর্য ওঠে ডুবে সন্ধ্যা নামে ধীরে
চিক চিক সোনা রোদ কত সুন্দর
কলসি কাঁখে বধূ যায় বাড়ি ফিরে
ধান কাউনের সবুজ গালিচায়
ঘাসফড়িং মনের আনন্দে নাচে
দোলে দোল কৃষ্ণচূড়ার লাল ফুল
শিশুরা বৌছি খেলে গাছের নিচে
বাবলা গাছ এক পাশে আছে নূয়ে
রাখাল বাজায় সুরে বাঁশী ঐ দূরে
কৃষক বাঁচায় দেশ স্বপ্ন বুনে মাঠে
র্নিমল বায়ু নানা ব্যস্ততা নিয়ে ঘুরে
অন্ধকার ঘুমিয়ে থাকে নীরবতায়
কোলের শিশু ভূত পেত্নির ভয় পায়
বউ কথা কউ পাখিটি ধড়ফর করে
বন্ধু নাকি হারিয়েছে পথ ভুলে দূরে
সুখের পাখি নাচে গাছের উঁচু ডালে
লালে ধুয়ে সবুজ তারুণ্য হয় বাদামি
পাড়াগাঁয়ের যুবকেরা আড্ডা জমায়
আমার আঁকা ছবিতে নেই শুধু আমি

 

ড. গোলসান আরা বেগম : সাবেক অধ্যক্ষ, আর এস আইডিয়েল কলেজ, কিশোরগঞ্জ।