ভৈরবে দুই মণ গাঁজাসহ ৭ জন আটক

আমাদের নিকলী ডেস্ক ।।

ভৈরবে ৮১ কেজি গাঁজাসহ একজন ভুয়া মানবাধিকার কর্মী ও ছয় মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব-১৪। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টার মধ্য শহরের নাটাল মোড় এলাকায় পৃথক অভিযানে তাদেরকে আটক করা হয়। এসময় তাদের ব্যবহৃত দুইটি পিকআপ ও একটি প্রাইভেট কার জব্দ করে র‌্যাব।

আটককৃতরা হলেন- ভুয়া মানবাধিকার কর্মী হবিগঞ্জের রুদ্র গ্রামের মইনুর রশিদ (৩৫), মাদক ব্যবসায়ী হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের জহির আলী (৩৬), গাজীপুরের পাটুয়া গ্রামের শামিম শেখ (২৪), নরসিংদীর সুলতানপুর গ্রামের মোবারক হোসেন (২২), গাজীপুরের শাওরাইট গ্রামের শামীম (২৩), কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ার কোদালী গ্রামের মো. আলমগীর (২৩) ও হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ গ্রামের মো. জনি (১৮)।

আটককৃতদের কাছ থেকে মাদক বিক্রির ২৪ হাজার ৫০০ টাকা উদ্ধার করে। র‍্যাব জানায়, উদ্ধারকৃত মাদকসহ আলামতের মূল্য প্রায় ৪১ লাখ ৪৩ হাজার ৬০০ টাকা। এই ঘটনায় ভৈরব থানায় র‍্যাব বাদী হয়ে পৃথক তিনটি মামলা করেছে।

জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভৈরব র‍্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক রাফিউদ্দিন মোহাম্মদ যোবায়ের ও স্কোয়াড কমান্ডার চন্দন দেবনাথ বৃহস্পতিবার সকালে পৌর শহরের কাছে মেঘনা নদীর সড়ক সেতু সংলগ্ন নাটাল মোড় এলাকায় একটি চৌকি স্থাপন করে। তারা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে চলাচলকারী গাড়ি তল্লাশি করে তিনটি সন্দেহভাজন গাড়ি আটক করে। পরে তল্লাশি চালিয়ে মানবাধিকার কর্মী মইনুর রশিদের গাড়ি থেকে ২২ কেজি এবং অপর দুটি গাড়ি থেকে ৫৯ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে। ঘটনার সময় তিন গাড়ির মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মাদক বিক্রির সাড়ে ২৪ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। র‍্যাব সদস্যরা মাদক ব্যবসায়ীসহ তিনটি গাড়িও আটক করে।

ক্যাম্পের অধিনায়ক রাফিউদ্দিন মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, আটককৃত মইনুল রশিদ দীর্ঘদিন যাবত মানবাধিকার কর্মীর ভুয়া স্টিকার লাগিয়ে গাড়িতে মাদক ব্যবসা করছে। জিজ্ঞাসাবাদে সে এ কথা স্বীকার করেছে। অন্য আটককৃত ছয়জন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক থানায় মামলা রয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে আগে থেকেই খবর ছিল তারা হবিগঞ্জ থেকে গাঁজা নিয়ে ঢাকায় যাবে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে ভৈরব থানায় পৃথক তিনটি মামলা করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

সূত্র : জাগোনিউজ২৪