নিকলীতে কিশোরীকে গণধর্ষণ, ৩ অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

খাইরুল মোমেন স্বপন, বিশেষ প্রতিনিধি ।।

কিশোরগঞ্জের নিকলীতে এক কিশোরীকে (১৬) গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২ জুন) রাতে নিকলী থানায় পাঁচ কিশোরকে অভিযুক্ত করে ওই কিশোরীর মা একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ একই রাতে উপজেলার জারুইতলা ইউনিয়নের রোদ্দারপুড্ডা গ্রামের মোঃ রায়হান (১৫), একই গ্রামের খায়রুল মিয়া (১৪) ও মোঃ হাসান (১৬) নামের তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। অভিযুক্ত রনি (১৬) ও সাদিয়া আক্তার (১৬) পলাতক রয়েছে।

মামলার এজাহার ও থানা সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার (১ জুন) রাতে গণধর্ষণের শিকার কিশোরীকে প্রতিবেশি সাদিয়া আক্তার তার সাথে ঘুমানোর কথা বলে নিতে আসে। ধর্ষিতার মা-বাবা প্রথমে আপত্তি করলেও সাদিয়া বাড়িতে একা রয়েছে জেনে মানবিক কারণে তাদের মেয়েকে সাদিয়ার সাথে যেতে অনুমতি দেন। রাত প্রায় ৮টার দিকে সাদিয়ার বাড়িতে যাওয়া মাত্র ওই কিশোরীকে অভিযুক্তরা মুখ চেপে বাড়ির পাশে একটি পাট ক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে পালাক্রমে চারজন ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে কিশোরী ডাক-চিৎকার করার সুযোগ পায়। তার বাবা-মা ও এলাকার লোকজন এগিয়ে আসে। অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। বিষয়টি তার মা-বাবা সোমবার বিকেলে নিকলী থানা পুলিশকে জানান।

নিকলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাসছুল আলম সিদ্দিকী বলেন, পুলিশ খবর পাওয়ার পর তিনি নিজেসহ সঙ্গীয় অফিসারদের নিয়ে তাৎক্ষণিক জারুইতলা ইউনিয়নের রোদ্দার পুড্ডা গ্রামের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তিন স্থান থেকে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেন।

তিনি আরো জানান, প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে। বুধবার সকালে গণধর্ষণের শিকার কিশোরীকে কিশোরগঞ্জ সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও আদালতে ২২ ধারার জন্য পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত তিনজনকেও একই দিন আদালতে পাঠানো হয়েছে। পলাতকদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।