সহযোগিতা পেলে বাঁচতে পারে আজহারের জীবন

বিশেষ প্রতিনিধি ।।

কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলার নানশ্রী গ্রামের নৌকা শ্রমিক আজহারুল ইসলামের (২৭) হৃৎপিণ্ডের একটি ভাল্ব নষ্ট হয়ে গেছে। আরেকটি নষ্ট হওয়ার পথে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আজহারকে বাঁচাতে জরুরি ভিত্তিতে ভাল্ব প্রতিস্থাপন করতে হবে। এর জন্য দুই লাখ টাকা প্রয়োজন।

আজহারের বয়স যখন তিন বছর, তখন তার বাবা কৃষিশ্রমিক সাহেদ আলী অসুস্থ হয়ে মারা যান। ছোট সময় থেকেই আজহার শ্রমের কাজ করে বড় হয়েছেন। খুব কম বয়সেই মায়ের সংসারের হাল ধরেন তিনি।

মা, স্ত্রী ও ছোট তিনটি মেয়ে সন্তান নিয়ে এখন আজহারের সংসার। অসুস্থতার কারণে বেকার হয়ে যাওয়ায় একমাত্র উপার্জনক্ষম দরিদ্র আজহারের সংসারে এখন খাবারের সংকট। এ পরিস্থিতিতে তার চিকিৎসা দুঃস্বপ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

আজহারের মা আরজুনা বেগম জানান, অসুস্থ হওয়ার পর থেকে ছয় মাসে তার ছেলের চিকিৎসায় ১ লাখ ৩০ হাজার টাকার মতো খরচ হয়ে গেছে। সে টাকা যোগান দিতে গিয়ে বাড়িঘর বিক্রি করতে হয়েছে। এখন তাদের পক্ষে আর চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। চিকিৎসা না করাতে পারায় আজহার এখন বিছানায় কাতরাচ্ছেন।

ভাল্ব প্রতিস্থাপনই তাকে বাঁচিয়ে তুলতে পারে। এ সংকটে ছেলেকে বাঁচাতে সমাজের সচ্ছল ও সহৃদয়বানদের আর্থিক সহায়তা কামনা করেছেন মা।

যোগাযোগ : ০১৯৩৪৫৮৪০২৯। সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা : মো: আজহারুল ইসলামের ব্যক্তিগত বিকাশ নম্বর-০১৯২১১১৩৪০৫।

Similar Posts

error: Content is protected !!