‘চোখ ওঠা’ থেকে মুক্তি পেতে কি করবেন

চোখ উঠা বা কনজাঙ্কটিভাইটিস্ (Conjunctivitis) হচ্ছে চোখের ভাইরাসজনিত ইনফেকশন। ভাইরাস কেরাটাইটিস বা হারপেম সিমপেক্স ভাইরাসজনিত ইনফেকশনই মূলত ভাইরাসজনিত ইনফেকশন। এ ধরনের ইনফেকশনে সাধারণত এক চোখ আক্রান্ত হয়ে থাকে।
চোখ ওঠার লক্ষণগুলো হচ্ছে: চোখ জ্বালাপোড়া করা, চোখের ভেতর অস্বস্তি হতে থাকে, সামান্য ব্যথা হয়, রোদে বা আলোতে তাকাতে কষ্ট হয় ও অতিমাত্রায় পানি পড়ে। এছাড়া চোখ লাল হয়ে ফুলে ওঠে। ঘুম থেকে ওঠার পর চোখের পাতা দুটি একত্রে লেগে থাকে। চোখ থেকে শ্লেষ্মাজাতীয় পদার্থ বের হতে থাকে ও হলুদ রঙের পুঁজ সৃষ্টি হয়। সাধারণত ৭ থেকে ৮ দিনের মধ্যে উপসর্গগুলো কমে আসে। কিন্তু দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে যায়। চোখের মনি বা কর্নিয়াতে সাদা দাগ পড়ে যায়। খালি চোখে দেখে বোঝা যায় না। এতোগুলো উপসর্গ আক্রান্ত ব্যক্তির ক্ষেত্রে একসঙ্গে দেখা নাও যেতে পারে।
‘চোখ ওঠা’ রোগে কিছু বিষয় মেনে চললে কিছুটা আরাম পাওয়া যায়। যেমন:
১. ধুলোবালি, আগুন-আলো-রোদে কম যাওয়ার চেষ্টা করবেন।
২. ময়লা-আবর্জনাযুক্ত স্যাঁতসেঁতে জায়গা এড়িয়ে চলুন।
৩. পুকুর বা নদী-নালায় গোসল না করাই ভালো।
৪. চোখে কালো চশমা ব্যবহার করুন।
৫. সারাক্ষণ মোবাইল ফোনের মনিটরে, টিভি বা কম্পিউটারের সামনে বসে থাকবেন না। এতে চোখে চাপ পড়ে যা সংক্রমণ বাড়িয়ে দেয়।
৬. সম্ভব হলে ১০ থেকে ১৫ দিন সম্পূর্ণ বিশ্রামে থাকুন।
৭. চোখে পানির ঝাপটা দেবেন না। এতে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
৮. কোনো বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিন।