পরীক্ষার পর নতুন করে কাজ শুরু করব

রুকাইয়া রশীদ রিমি। প্যারাস্যুট অ্যাডভান্স বেলীফুল স্টাইলিশ হেয়ার অব দ্য ক্যাম্পাস ২০১৪ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়ে শোবিজ অঙ্গনে পা রেখেছেন। এবারের ঈদে জিটিভিতে প্রচার হয়েছে তার অভিনীত প্রথম নাটক প্রিয় ঝাউপাতা। ঈদ নাটক এবং বর্তমান ব্যস্ততা নিয়ে রিমির সাথে কথা বলেছেন আলমগীর কবির

ঈদ মোবারক। ঈদ কেমন কাটালেন?
সবার দোয়ায় ভালোই কেটেছে ঈদ। ঢাকার নিকেতনে বোনের বাসায় ঈদ করেছি এবার।
টেলিভিশনে প্রথম নাটক প্রচার হলো, কেমন লাগছে?
আমার কাছে বিষয়টা এখনো স্বপ্নের মতোই মনে হচ্ছে। ছোট বেলা থেকে স্বপ্ন ছিল অভিনয় করার, সেটারই বাস্তবায়ন হলো রেদওয়ান রনির প্রিয় ঝাউপাতা নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে। নাটকটি রচনা করেছেন ইকবাল হোসাইন চৌধুরী। অভিনয় করেছেন নাঈম, এ্যালেন শুভ্র, টয়া প্রমুখ। টেলিভিশনে নাটকটি প্রচার হওয়ার পর পরিচিতজনদের কাছ থেকে অনেক রেসপন্স পেয়েছি।
টিভি নাটকের আগে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা আছে?
নাহ, এর আগে এভাবে কখনো অভিনয় করা হয়নি কখনো। তবে স্কুলের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নিয়মিত অভিনয় করা হতো আমার। এ ছাড়া স্থানীয় (ময়মনসিংহ) একটি থিয়েটারেও যাওয়া হয় মাঝে মধ্যে। অভিনয় বলেন আর সাংস্কৃতিক চর্চা বলেন আমার সব ওখান থেকেই শুরু। পরে প্যারাস্যুট অ্যাডভান্স বেলীফুল স্টাইলিশ হেয়ার অব দ্য ক্যাম্পাস ২০১৪ প্রতিযোগিতার ক্যাম্পে এসে নিজেকে সবার সামনে উপস্থাপনের উৎসাহ এবং সাহস অনেকে জুগিয়েছে।

প্যারাস্যুট অ্যাডভান্স বেলীফুল স্টাইলিশ হেয়ার অব দ্য ক্যাম্পাস ২০১৪ প্রতিযোগিতা আপনার মধ্যে পরিবর্তন এনেছে কিভাবে?
এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমি একটি প্লাটফর্ম পেয়েছি। সারা দেশের ৩০০ কলেজ থেকে নাচ, র‌্যাম্প, অভিনয়ের ভিত্তিতে যখন আমাদের বাছাই করা হয় আমরা প্রতিনিয়ত নতুন অভিজ্ঞতা পেয়েছি। এই অভিজ্ঞতাগুলো শুধু মিডিয়া নয়, আমাদের বাস্তব জীবনের প্রাত্যহিক জীবন যাপনে প্রতিনিয়ত কাজে লাগবে। আমার মনে হয় এই ধরনের প্রতিযোগিতা ক্যাম্পের প্রতিটি মানুষের থাকার অভিজ্ঞতা প্রয়োজন।

 

এখন হাতে আর কী কাজ আছে?

আপতত নতুন কোনো কাজ হাতে নিচ্ছি না। সামনে এইচএসসি পরীক্ষা, পড়াশোনার প্রচুর চাপ। পরীক্ষার পর নতুন করে কাজ শুরু করব। সবাই দোয়া করবেন যেন ভালো রেজাল্ট করতে পারি।
আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?
মেডিক্যালে পড়ব, পাশাপাশি অভিনয় করব। আমি চাই এমন একজন মানুষ হতে যেখানে থেকে সমাজের কল্যাণমূলক কাজ করা যায়।