কটিয়াদীতে দুই স্কুল শিক্ষার্থী ধর্ষিত, আটক ১

কটিয়াদী( কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ।।

কটিয়াদীতে দুই স্কুলছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় শনিবার (২ জুন ২০১৮) রাতভর অভিযান চালিয়ে মস্তোফা নামের এক ধর্ষককে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৩১ মে ২০১৮) রাতে উপজেলার মসূয়া ইউনিয়নের কাজীরচর কলাতলী পাড়ায় এই গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার রাতে দুই স্কুলছাত্রী তাদের বন্ধু মিজানকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী অন্য এক বান্ধবীর বাড়িতে যাওয়ার পথে কাজীরচর গ্রামের কলাতলীপাড়া পৌঁছালে দুইটি মোটরসাইকেল যোগে মোস্তফা, জীবন, ইব্রাহিম, মনির তাদের গতিরোধ করে পার্শ্ববর্তী ব্রহ্মপুত্র নদীর পাড়ে লেবু বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে মিজানকে বেঁধে রেখে দুই ছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে এবং মিজানের মোবাইল ফোনটি নিয়ে যায়। ধর্ষণ শেষে এর পরিণাম ভালো হবে না বলে ধর্ষকেরা ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। ভয়ে ছাত্রীর অভিভাবগণ বিষয়টি গোপন রাখেন।

মিজানের মোবাইল ফোনটি ধর্ষকেরা ফেরত না দেয়ায় বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এলাকার কয়েকজন সামাজিকভাবে বিষয়টি আপস মীমাংসার জন্য ছাত্রীপক্ষকে চাপ দেয়। এতে ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হয়।

শনিবার বিষয়টি পুলিশের দৃষ্টিগোচর হলে হোসেনপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরাফাতুল ইসলামের নির্দেশে কটিয়াদী থানার ওসি মো. জাকির রব্বানী সঙ্গীয় ফোর্সসহ গভীর রাতে মসূয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায়। অভিযানে মস্তোফা নামে ধর্ষককে আটক করে পুলিশ। তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে তার সঙ্গীদের নিয়ে গণধর্ষণের কথা স্বীকার করে।

কটিয়াদী থানার ওসি মো. জাকির রব্বানী বলেন, সংবাদ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ফোর্স নিয়ে অভিযানে নামি এবং প্রধান ধর্ষক মস্তোফাকে আটক করি। এ ব্যাপারে কটিয়াদী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আটক ধর্ষক মস্তোফা

Similar Posts

error: Content is protected !!